সোমবার-২৫শে মে, ২০২০ ইং-১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সময়: দুপুর ১:০৬, English Version
করোনা মুক্তিতে বিশেষ মোনাজাত একমাস পর বিশ্বজুড়ে ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজারের নিচে নামলো করোনায় প্রাণহানির সংখ্যা বায়তুল মোকাররমে ঈদের পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত ঈদের সকালে ঝড়ে লণ্ডভণ্ড লানমানিরহাটের অর্ধশত ঘরবাড়ি এ বছরের ঈদটি অনেক কঠিন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী যশোরে নেই ঈদের আমেজ জলঢাকায় পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ সম্পন্ন

আমার সাফল্যের পেছনে অদিতির ভূমিকা অনস্বীকার্য: অপূর্ব

প্রকাশ: সোমবার, ১৮ মে, ২০২০ , ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ : বিনোদন,সারাদেশ,

এমএন২৪.কম ডেস্ক : ভালোবেসে হাতটা ধরলেও ৯ বছরেই ভেঙে যায় সুখের সংসারটা। ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও নাজিয়া হাসান অদিতিকে এতদিন সুখী দম্পতি হিসেবে জেনে আসলেও সেই সংসারে এখন বিচ্ছেদের ঘনঘটা।

রোববার বিকালে নিজের ফেসবুকে রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস ‘ম্যারিড’ পরিবর্তন করে ‘ডিভোর্সড’ লিখেন অপূর্বের স্ত্রী। এরপর নিজের ফেসবুকে নিজেদের অবস্হান পরিষ্কার করে একটি স্ট্যাটাস দেন অদিতি।

অনেক যোগাযোগের পরও মুঠোফোনে পাওয়া যায় নি এ দুজনকে। এরপর অদিতি নিজের অবস্হান পরিষ্কার করে স্ট্যাটাস দেন এবং জানান তাদের এমন সিদ্ধান্তে যেন সবাই তাদের পাশে থাকেন এবং সাপোর্ট করেন। অপূর্বর ব্যক্তিগত জীবন নয়, তাঁর কাজ দিয়েই যেন সবাই তাঁকে বিচার করেন।

এরপর রোববার মধ্যরাতে নিজের ফেসবুকে এ বিষয়ে স্ট্যাটাস দেন অপূর্ব। সেখানে তিনি লিখেন,

আপনাদের ওপর শান্তি বর্ষিত হোক। ভারী ও ক্ষত হৃদয়ের জানাচ্ছি যে, আমি আমার ৯ বছরের সংসার জীবনে নাজিয়া হাসানের সাথে আমার যাত্রা ছিল দুর্দান্ত, সে এসেছিলো অযাচিত মোড়কে এবং আমাকে কিছুটা হতবাক করে দিয়েছে। যদিও এটি আমরা নিজের জন্য চেয়েছিলাম তা নয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় এখানেই আজ আমাদের জীবন এনে দিয়েছে।

এত বছর যাবত আমরা এক সাথে ছিলাম। সবকিছুর সর্বদা দুর্দান্ত অংশীদার এবং সত্যিকারের শুভাকাঙ্ক্ষী ছিলো সে। আমার অনেক সাফল্যের পেছনে অদিতি মূল ভূমিকা পালন করেছে। অদিতি খুব অমায়িক, একজন আত্মবিশ্বাসী উদ্যোক্তা এবং সর্বোপরি অত্যন্ত দয়ালু এবং মানবিক ব্যক্তি।

তিনি আরও লিখেন, যদিও আমি আমার ক্যারিয়ারে অনেককিছু অর্জন করেছি, তবুও আমার সর্বকালের সবচেয়ে বড় অর্জন সর্বদা আমাদের ছেলে আয়াশ। পিতৃত্বের এই দুর্দান্ত উপহারের জন্য আমি নাজিয়াকে পর্যাপ্ত পরিমাণে ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করতে পারব না। তিনি আমার সন্তানের অনুকরণীয় মা হয়েছেন এবং আমাদের ছেলের প্রতিপালনের অংশীদার হিসাবে আমাদের যাত্রা সর্বদা অব্যাহত থাকবে।

আমি বুঝতে পারি যে বিয়ের মতো একতা ভাঙ্গা অনেক প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারে, তবে আমি আমার বন্ধুবান্ধব, আমার সহকর্মীদের এবং আমার লাখো ভক্তদের অনুরোধ করছি যে দয়া করে আমাদের ভাবুক। আমাদের সবার পক্ষে এটিই সর্বোত্তম বিশ্বাস করি যে, আমাদের উভয় পরিবার সহায়ক ছাড়াও কিছু ছিল। আমি আশা করি যে আপনিও তাই করবেন যাতে আমি এবং নাজিয়া আমাদের এই পরীক্ষার কঠিন সময়গুলি পার করতে পারি।

আশা করবো আমাদের তিনজনকে আপনারা আপনাদের প্রার্থনায় রাখবেন।

২০১১ সালের ১৪ জুলাই ভালোবেসে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন অপূর্ব। তাদের সেই সংসারে জায়ান ফারুক আয়াশ নামে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

Facebook Comments

বিনোদন,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ