- মুক্তিনিউজ২৪.কম - https://muktinews24.com -

করোনা মোকাবিলায় প্রচার কার্যক্রম জোরদার করার আহ্বান

এমএন২৪.কম ডেস্ক : করোনা মোকাবিলায় জনসচেতনতা তৈরিতে প্রচার-প্রচারণা কার্যক্রম জোরদার করার আহ্বান জানিয়েছেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল হোসেন মজুমদার। তিনি বলেন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও মাস্ক ব্যবহারের আহ্বান জানিয়ে সরকারের পাশাপাশি স্থানীয় রাজনীতিবিদ ও সামাজিক নেতৃবৃন্দের উদ্যোগে মাইকিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকা জেলায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ, ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ কার্যক্রম ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বক্তৃতাকালে এ আহ্বান জানান। বৈঠকে আরো বক্তৃতা করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মোঃ এনামুর রহমান, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, এডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি, হাজী সেলিম এমপি, ঢাকা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান ও ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান পিএএ। স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মোঃ আলী নূর ভার্চুয়াল বৈঠকটি সঞ্চালনা করেন। ঢাকা জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল ইসলাম এতে সভাপতিত্ব করেন। জেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।PID

শিল্প প্রতিমন্ত্রী তার বক্তৃতায় জুমার খুতবার সময় মুসল্লিদের মাস্ক ব্যবহারে সচেতন করতে ইমামদের প্রতি আহ্বান জানান। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মোঃ এনামুর রহমান স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে সচেতনতা প্রচারণা কার্যক্রম জোরদার করার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় সরকারের সকল বিভাগ সাফল্যের সাথে কাজ করছে। এডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি বলেন, শিক্ষিত সমাজ-সহ সমাজের নেতৃবৃন্দ মাস্ক ব্যবহার করলে সাধারণ জনগণ মাস্ক ব্যবহারে আরও উৎসাহিত হবে। ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান পিএএ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দরিদ্রদের মাঝে বিনামূল্যে দুটি করে মাস্ক সরবরাহের প্রস্তাব করেন।

ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বক্তাগণ গণপরিবহনে মাস্ক ব্যবহারে সচেতনতা সৃষ্টিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাসহ প্রয়োজনীয় কর্মসূচি গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বলেন, যেখানে মাস্ক ছাড়া কোনো ব্যাক্তিকে পাওয়া যাবে, সেখানে সাথে সাথে তাকে মাস্ক প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। বক্তারা এ সময় বলেন, কোনো চাষযোগ্য জমি পতিত রাখা যাবে না এবং কৃষি উৎপাদন কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। করোনার দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবিলায় সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ কার্যক্রম সুসমন্বিতভাবে পরিচালনার আহ্বান জানান তাঁরা।

Facebook Comments