মঙ্গলবার-২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০-৭ আশ্বিন, ১৪২৭, সময়: রাত ১:১৪, English Version
৩ জেলা ও ৯ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত লালপুরে বিষধর সাপের কামড়ে স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু! মাস্ক পরা নিশ্চিতে মার্কেট-শপিং মলে ‘আকস্মিক অভিযান’ লালপুর প্রেস ক্লাবের সভা অনুষ্ঠিত ফুলছড়িতে দি মেসেজ ফাউন্ডেশনের খাবার প্যাকেজ বিতরণ হিলিতে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত মানব পাচার ও বাল্য বিবাহের শিকার ও মানব পাচারের ঝুঁকিতে থাকা অসহায় নারী পুরুষগণের সমন্বয়ে গরু মোটাতাজাকরণ প্রশিক্ষণ উদ্বোধন

জাহানাবাদ আলিম মাদরাসায় টাকার বিনিময়ে শিবির কর্মী নিয়োগের সংবাদ প্রকাশিত হলে সোস্যাল মিডিয়া ভাইরাল ॥ এই সেই আওয়ামী নেতা ও শিবির ক্যাডার

প্রকাশ: শনিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ৯:০৫ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

এমএন২৪.কম ডেস্ক :  আজ ১২ সেপ্টেম্বর ৪.০২ মিনিটে অনলাইন নিউজ পোর্টাল মুক্তিনিউজ.২৪কমে জাহানাবাদ দারুল উলুম আলিম মাদরাসায়
আওয়ামীলীগের সভাপতি রইচ উদ্দিন প্রামানিক ১০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে শিবির কর্মীকে নিয়োগ দেওয়ার সংবাদ প্রকাশিত হলে দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। পার্বতীপুর শহর এলাকার ফটোকপির দোকানগুলোতে নিউজটি ফটোকপি করে পড়ার হিড়িক পড়ে যায়। উল্লেখ্য, জাহানাবাদ দারুল উলুম আলিম মাদরাসায় অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে মনারুল ইসলাম মুন্না নামের এক জামায়াত শিবির কর্মীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। নিয়োগ প্রদান করেন মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি রইচ উদ্দীন প্রামানিক। শুক্রবার সকালে উপজেলার তালিমুন্নেছা মাদরাসায় এই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্টিত হয়। অভিযোগ উঠেছে ১০ লাখ টাকার বিনীময়ে এই শিবির কর্মীকে নিয়োগ দেন সভাপতি ও অধ্যক্ষ একরামুল হক ।
জানাযায়, উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের জাহানাবাদ দারুল উলুম মাদরাসায় অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। শুক্রবার পরীক্ষা নেওয়ার জন্য মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে ডিজির প্রতিনিধি উপস্থিত থাকেন। পরীক্ষায় ৭ জন প্রার্থী অংশ নিলেও আব্দুর রহমান ১ম নির্বাচিত হলেও তাকে না নিয়ে শিবির কর্মী মনারুল ইসলামকে ১০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে উত্তীর্ণ করা হয়। মনারুলের বাড়ী শহরের বাবু পাড়া মহল্লায়।

 

চন্ডিপুর ইউনিয়নের জাহানাবাদ গ্রামের প্রবীন আওয়ামীলীগ কর্মী পান দোকানদার আব্দুল হাকিম বলেন , আমি সারা জীবন আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসলাম। বয়সের ভারে আর তেমন কাজ কর্ম করতে পারি না। কোন রকমে সংসার চালাই। আমার গ্রামের মাদরাসায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে আমার ছেলে অফিস সহকারী পদে দরখাস্ত করে ছিল। কিন্তু টাকার অভাবে আজ আমার ছেলের চাকুরীটা হলো না। চাকুরী হলো শহর থেকে নিয়ে আসা এক শিবির ক্যাডার। জীবনের শেষ মূহুতে এসে আমি দিশেহারা।
উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক মমিনুল মাষ্টার বলেন, শহরের বাবুপাড়ার মনারুল ইসলাম মুন্না জামায়াত শিবিরের সাথে যুক্ত। এলাকার সবাই তাকে শিবির কর্মী হিসেবে চেনে। মনারুল ইসলামের কার্যক্রম সোস্যাল মিডিয়া প্রকাশিত।

Facebook Comments

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ