1. recentnews19@gmail.com : News Desk :
  2. moinul129@gmail.com : mohin :
  3. editormuktinews24@gmail.com : Melon parvez : Melon parvez
রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:১৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
অনুমোদনের প্রথম ধাপেই ভ্যাকসিন পাবে বাংলাদেশ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাস) সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন বাল্যবিবাহ মুক্ত চাটখিল ঘোষণার দাবিতে মানববন্ধন ফুলবাড়ী পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী খাজা মঈন উদ্দিন চিশতি নড়াইলে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে ধান বীজ বিতরণ বরিশালে নেশাজাতীয় ইনজেকশনসহ যুবক আটক মেয়াদ শেষে ক্ষমতায় থাকার সুযোগ আর পাবে না  উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা “ কুয়াকাটায় রাস পূর্ণিমা উৎসব ও গঙ্গা¯œান আজ, কলাপাড়ায় বসেছে পাঁচদিন ব্যাপী রাস মেলা” নড়াইল-যশোর সড়কে ট্রাকের ধাক্কায় কাঁচামাল ব্যবসায়ী নিহত বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর ভিত্তি স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ডোমারে বেকার কৃষি শ্রমিকরা কাজের সন্ধানে ছুটছে শহরে।

  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০, ৭.৩২ পিএম
  • ১২ বার

রবিউল হক রতন, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>
নীলফামারীর সীমান্ত ঘেঁষা ডোমার উপজেলাসহ প্রায় সর্বত্র এখন চলছে মরা কার্তিকের আকাল। শ্রমজীবী মানুষের হাতে এখন কোন কাজ নেই।এদিকে কাজের অভাব অপরদিকে দিন দিন চাল,আলু,পিয়াজ,কাঁচা মরিচসহ সবজির আকাশচুম্বি মূল্য বৃদ্ধিতে জীবন যাপন দূর্বিসহ হয়ে উঠেছে। রোপা আমনের কাজ শেষ হবার পর থেকে কৃষি শ্রমিকরা বেকার হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে।, এলাকায় তুলনা মূলক ভাবে শিল্প কারখানা না থাকায় এ অঞ্চলে প্রায় ৫৬ হাজার কৃষি শ্রমিক সম্পুর্ণ বেকার হয়ে পড়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৯অক্টোবর) সকালে ডোমার রেলষ্টেশনে গিয়ে দেখাযায় বিভিন্ন উপজেলার কৃষি শ্রমিকরা কাজের সন্ধানে শহরে যাওয়ার জন্য তরিঘরি করে ট্রেনে উঠছে। ডোমার,ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলায় কৃষি শ্রমিকরা তাদের পরিবারের সদস্যদের মুখে আহার তুলে দিতে করোনা ভাইরাস(মহামারী) কে উপেক্ষা করে নিজের জীবনকে বাজী রেখে কাজের সন্ধানে নিজ জেলা ছেড়ে অন্য জেলায় ছুটছে কাজের সন্ধানে।
আমন ধান কাটা মারাই করতে ডোমার উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন, ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার কৃষি শ্রমিকরা বাংকুয়া ও কাঁচিদা নিয়ে ডোমার রেল ষ্টেশনে ভীর জমিয়েছে জয়পুরহাট জেলার বিভিন্ন উপজেলায় আমন ধান কাঁটতে যাওয়ার জন্য। প্রতি বছর ভাদ্র, আশ্বিন ও কার্তিক এই ৩ মাসে কৃষি কাজ না থাকায় কৃষি শ্রমিকরা বেকার হয়ে পড়েছে। ফলে তাদের সংসারে দেখা দিয়েছে অভাব অনটন। পরিবারের অভাব-অনটন দুর করতে এসব শ্রমিকদের পাড়ি দিতে হয় দেশের বিভাগীয় শহড় গুলোতে, এবারেও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। এদের বেশীর ভাগেই ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রাজশাহী ও চট্রগ্রাম বিভাগীয় শহরে কাজ করে।এছাড়াও বড় বড় জেলা শহরে পুরুষ শ্রমিকরা রিক্সা,ভ্যান চালাচ্ছেন আর নারী শ্রমিকরা ছুটছেন বাসা বাড়ীতে ঝিয়ের কাজে।করোনা ভাইরাসের কারনে শহরের বাসা বাড়ীতে ঝিয়ের কাজে না নেওয়ায় মহিলারাও পরেছে বিপাকে। আর পুরুষদের হাতে টাকা না থাকায় অন্য শহরে কাজের সন্ধানে যাওয়ার আগে এলাকার দাদন ব্যবসায়ীদের কাছে হাত পাততে হচ্ছে তাদের। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে চড়া সুদ হাতিয়ে নিচ্ছে দাদন ব্যবসায়ীরা।
এদিকে ডোমার উপজেলায় হাজার হাজার মানুষ দাদন ব্যবসায়ীদের হাতে জিম্মি হয়ে দূর্বিসহ জীবন যাপন করছে। কৃষকের উৎপাদিত ফসল এবং স্কুল কলেজের শতশত শিক্ষক কর্মচারীরা তাদের বেতনের টাকার চেক আগাম দাদন ব্যাবসায়ীদের হাতে তুলে দিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে অতিকষ্টে জীবন যাপন করছে।এলাকায় আয়ের কোন উৎস না থাকায় হাজার হাজার কৃষক, শ্রমিক অসহায় হয়ে সুদের উপর ১ হাজার টাকা গ্রহন করে প্রতি মাসে ১শ থেকে ২শ টাকা অথবা ১মন থেকে দেড় মন ধান দিতে বাধ্য করে দাদন ব্যাবসায়ীরা।কাজের সন্ধানে ডিমলা উপজেলা থেকে আসা আনিছুর রহমানের সাথে কথা হয় ডোমার রেল ষ্টেশনে, তিনি বলেন আমি ২০ জনের একটি দল নিয়ে জয়পুর যাচ্ছি আমন ধান কাটার জন্য,পনের দিন ধান কাটলে সবকিছু খরচ বাদ দিয়ে ১৫হাজার টাকা আনা যাবে। অপর দলের নেতা আইনুল বলেন,এলাকায় কাজ না থাকায় সংসারের অভাব অনটনের কারনে করোনা ভাইরাসের মত মহামারি থাকা সত্ত্বেও জীবনের ঝুকি নিয়ে জয়পুরহাট জেলার যে কোন উপজেলায় কাজ করবো। ১৫দিন কাজ করলে ১২ থেতে ১৫ হাজার টাকা আনাযাবে। তিনি আরও জানান ডোমার, ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার প্রায় ৫০হাজার শ্রমিক জয়পুরহাট জেলায় আমন ধান কাঁটতে যাচ্ছে।
ডোমার উপজেলায় মোট ২০ হাজার ৫শত ৭৩ হেক্টর জমি, এর মধ্যে প্রায় ২লক্ষ্য ৯০ হাজার ৯শত ৬৩ জন সরাসরি কৃষি কাজের সাথে জড়িত। কৃষি পরিরার ৫৬হাজার ৯শত ১টি রয়েছে বলে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আনিছুর জামান জানান।

সামাজিক যোগাযোগে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর
themesbazarmuktin141