রবিবার-৯ আগস্ট, ২০২০-২৫ শ্রাবণ, ১৪২৭, সময়: দুপুর ২:২৫, English Version
সড়কে ঝরলো ২০ প্রাণ ‘জয়তু বঙ্গমাতা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতার জন্মদিনে দুস্থ নারীদের প্রধানমন্ত্রীর নগদ অর্থ সহায়তা সিনহা হত্যায় কারা জড়িত তদন্তে খতিয়ে দেখা হচ্ছে : র‍্যাব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার ২০ দিন পরে এইচএসসি পরীক্ষা! মৃত্যু নিশ্চিত করতে পর পর দুটি গুলি করেন ওসি প্রদীপ সামনে আসছে যে সাত নিয়োগ পরীক্ষা

দেশের একমাত্র পাথর খনিটি শ্রমিকদের আন্দোলনে অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠছে।সমাধান করা না হলে যে কোন সময় বন্ধ হতে পারে খনিটি।

প্রকাশ: শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০ , ৮:১৯ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

এমএন২৪.কম ডেস্ক : মধ্যপাড়া পাথর খনির শ্রমিকদের আন্দোলনে অগ্নি গর্ভ হয়ে উঠছে খনি এলাকা। মধ্যপাড়া পাথর খনির শ্রমিকদের ৩মাসের বেতনভাতা ও ঈদ বোনাস না দেওয়ায় পাথরখনির ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ৮শতাধিক শ্রমিকরা আজ ৩১জুলাই খনিগেটের সামনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচী পালন করে আসছে। এসময় শ্রমিকদের শ্লোগানে শ্লোগানে খনি এলাকা প্রকম্পিত হয়ে উঠে।খনির চারিদিকে লোকজন আতংকে ছুটাছুটি করতে থাকে।এদিকে শ্রমিকদের বেতন ভাতা না দিয়ে আন্দোলন দমানোর জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটেসির লোকজন শ্রমিকদের ভয়ভীতি ও মিথ্যা মামলা দেওয়ার চেষ্টা করছে। শ্রমিক আমিনুল মুনসি বলেন আন্দোলন দমানোর জন্য জেটিসসি কতৃপক্ষ সেনাবাহিনীর একজন অবসর প্রাপ্ত মেজর হায়দারকে ৮দিন পুর্বে সিকিউরিটি ইনচার্জ পদে নিয়োগ দেয়।তিনি শ্রমিকদের ভয়ভীতি দেখার শুরু করে। এতে এলাকার পরিবেশ আরো ভয়াবহ হয়ে উঠেছে।শ্রমিক নেতা খোরশেদ আলম বলেন করোনার সময় জিটেসি বেতন বোনাস না দিয়ে ৮শতাধিক শ্রমিককে ছুটিতে পাঠায় বেতন ভাতা ও ঈদ বোনাস না পেয়ে শ্রমিকরা মানবেতর জীবন যাপন করতেছে।শ্রমিকদের পরিবার না খেয়ে দিনাতিপাত করতেছে।

যা খুবই দুঃখজনক।তিনি আরো বলেন করোনা কালে বেতনভাতা পরিশোধের জন্য সরকারী ঘোষনা থাকার শর্তেও তারা আমাদের পাওনা পরিশোধ করতেছে না। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন কর্মকর্তা বলেন বেতন ভাতার টাকা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জেটিসি আত্নসাৎ করার পায়তারা করছে।ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জেটিসি পাথর উত্তোলনের জন্য পেট্রোবাংলার একটি চুক্তিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান।এলাকার রাজনেতিক ব্যক্তি ও সচেতন মানুষ নানা প্রশ্ন করছে ভাল প্রতিষ্ঠান কাজ না পেয়ে নাম সর্বস্ব প্রতিষ্ঠান কিভাবে দেশের একমাত্র কঠিন শিলা খনির পাথর উত্তোলনের কাজ পেল। এ প্রতিষ্ঠান কাজ পাওয়ার পর থেকে মধ্যপাড়া পাথর খনির মুখ থুবড়ে পড়েছে।পাথর উত্তোলনে আজ ও লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারেনি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জেটিসি।বেতন ভাতাও ঈদ বোনাস পরিশোধ না করায় খনির এ অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে মতামত জানার জন্য জেটিসির প্রধান কাজী সিরাজুল ইসলাম এর সাথে বারংবার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক বলেন শ্রমিকরা বেতন ভাতা না পাওয়ায় তারা মানবেতর জীবন যাপন করছে।তাদের বকেয়া বেতন ভাতা প্রদান করার জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জেটিসির কর্মকর্তারদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত আছে।দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম বলেন শ্রমিকদের আন্দোলনের বিষয়টির সমাধানের জন্য উদ্ধতন কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে। খনিটি দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নে অবস্থিত।এ অচলাবস্থার সমাধান করা না হলে যে কোন সময় এপ্রতিষ্ঠানটি বন্ধ হয়ে যেতে পারে।এলাকার সচেতন মানুষ মনে করছে উদ্ধতন কতৃপক্ষ বিষয়টি গুরুত্ব দিলে তাড়াতাড়ি সমাধান হতে পারে।

Facebook Comments

রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ