শনিবার-২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,-রাত ১২:৫৭

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

মোস্তাফিজের ৫ বলে এক ওভার! আখাউড়ায় আশ্রয়কেন্দ্রের কাজের পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব শ্রীমঙ্গলে ৩০০টি গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার ছাতকে আবারও বন্ধ হলো চুনাপাথর আমদানী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পদোন্নতি পাচ্ছেন ৭২৮৭ শিক্ষক সড়ক দূর্ঘটনায় শিশুসহ নিহত ২ সিরিজ জয়ে নতুন বছর শুরু টাইগারদের

দেশে একটি মানুষও আশ্রয়হীন থাকবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০ , ৫:৩১ অপরাহ্ণ , বিভাগ :
এমএন২৪.কম ডেস্ক : বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, দেশে একটি মানুষও আর আশ্রয়হীন থাকবে না। মুজিববর্ষ উদযাপনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার বাস্তাবায়নে প্রতিটি ভূমিহীনের জন্য ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন সরকার। যাতে করে মানুষ বন্যা এবং যে কোনো দুর্যোগ মোকাবিলায় এসব ঘরে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পান। পাশাপাশি বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙন এলাকায় শক্তিশালী আশ্রয়ণ কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে।  বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এখানে একের পর এক উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। কোনো মানুষ গৃহহীন থাকবে না। পর্যায়ক্রমে সকল গৃহহীন গৃহ পাবেন, ভূমিহীন ভূমি পাবেন। সে জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

রোববার (২২ নভেম্বর) রংপুরের পীরগাছা উপজেলার শিবদেব চর দ্বি-মুখী বিদ্যালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙন এলাকার জন্য ৩ কোটি ৯ লাখ ৬৪ হাজার টাকা ব্যয়ে তিনতলা বিশিষ্ট বন্যা আশ্রয়ণ কেন্দ্র নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে এক সুধী সমাবেশে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ৪০০ বন্যার্ত মানুষ এবং ১০০টি গবাদি পশু আশ্রয় নিতে পারবে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মাহবুবার রহমান, এলজিইডি রংপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী রেজাউল হক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসমীন প্রধান, উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আব্দুল হাকিম। এর আগে বাণিজ্যমন্ত্রী পীরগাছা-পাওটানা সড়কের কালিদাসের ঘাট নামক স্থানে ৩ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৫৪ মিটার দীর্ঘ ব্রীজের উদ্বোধন এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে বন্যা প্রবণ ও নদী ভাঙন এলাকায় ৩ কোটি ৯ লাখ ৬৪ হাজার টাকা ব্যয়ে বন্যা আশ্রয়ণ কেন্দ্র নির্মাণের ভিত্তি প্রস্তর  স্থাপন করেন। এছাড়াও তিনি স্থানীয় তাম্বুলপুর ইউনিয়নের রহমতের চরে ৫৪ একর জমির ওপর গুচ্ছগ্রাম নির্মাণের জায়গা পরিদর্শন করেন এবং সেখানে আরও একটি ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

Facebook Comments

অর্থনীতি,স্লাইডার বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ