সোমবার-৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-২২শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,-ভোর ৫:২৬

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

৭১১জন শিক্ষক কর্মচারি এমপিও ভুক্তির আবেদন ত্রুটি সমস্যা দেখিয়ে তালিকা প্রকাশ করল কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর।শিক্ষক কর্মচারিদের মাঝে ক্ষোভ সৈয়দপুরে কুকুরের কামড়ে ৬ জন হাসপাতালে বিরামপুর থানা পুলিশের উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন  শিবগঞ্জে নানা আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ দিবস উদ্যাপন লালপুরে আ’লীগের উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশে দেশিও পণ্যের সঠিক প্রদর্শন করতে হবে : শিল্পমন্ত্রী ‘সোনার বাংলা’ গড়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন মোদি

নেপিয়ার জাতের ঘাস চাষ লালমনিরহাটে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে

প্রকাশ: শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ , ৯:৩৪ অপরাহ্ণ , বিভাগ :
মোঃলাভলু শেখ লালমনিরহাট থেকে।
 চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় লালমনিরহাটে নেপিয়ার জাতের ঘাসের ভাল ফলন হয়েছে। ফলে নেপিয়ার ঘাস চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।  ফলে ঘাস চাষ লালমনিরহাটে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
জানা যায়, লালমনিরহাটে নেপিয়ার জাতের ঘাস চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। লালমনিরহাট জেলার ৫টি উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়ন ও ২টি  পৌরসভার বিভিন্ন গ্রামে গরু মোটাতাজাকরণের জন্য নেপিয়ার ঘাস চাষ হচ্ছে। এই ঘাস গবাদি পশুকে খাওয়ানো হয়।
ফলে গরু মোটাতাজা হয় এবং গাভী গরুর প্রচুর দুধ হয়। বর্তমানে এই ঘাস পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষকরা।  ফলে এক মুহূর্ত বসার সময় নেই কৃষকের হাতে। কাটা ঘাস গবাদি পশুকে খাওয়ানো হয়।
জমিতে ঘাস বীজ রোপণের পর এই ঘাস বড় হলে কাটা হয় এবং কিছু দিন পর এমনি থেকে আবার ঘাস গজায়। সার ও পানি সেচ দিলে ঘাস তাড়াতাড়ি বড় হয়। লাভজনক বলে কৃষকরা নেপিয়ার ঘাস চাষে ঝুঁকে পড়েছে। এক বার কাটার পর আবার এক থেকে দেড় মাস পর ঘাস কাটা যায়। ঘাস চাষীরা নিজেদের গবাদি পশুকে এ ঘাস খাওয়ান। লালমনিরহাট জেলায় ৫ শতাধীক গরুর খামার গড়ে উঠেছে। নেপিয়ার ঘাস চাষের ফলে খামার মালিকরা উপকৃত হচ্ছে।
মোগলহাট ইউনিয়নের ফুলগাছ গ্রামের হযরত আলী জানান, নেপিয়ার জাতের ঘাস আমিও চাষ করেছি। এটা লাভজনক ফসল। এতে করে বাড়তি খাদ্যের চাহিদা কমেছে। গরু-ছাগল পালনের
জন্য এ ঘাস অত্যান্ত উপকারী বলে জানা গেছে।
Facebook Comments

রাজশাহী,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ