1. recentnews19@gmail.com : News Desk :
  2. moinul129@gmail.com : mohin :
  3. editormuktinews24@gmail.com : Melon parvez : Melon parvez
রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৭:২৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
অনুমোদনের প্রথম ধাপেই ভ্যাকসিন পাবে বাংলাদেশ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাস) সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন বাল্যবিবাহ মুক্ত চাটখিল ঘোষণার দাবিতে মানববন্ধন ফুলবাড়ী পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী খাজা মঈন উদ্দিন চিশতি নড়াইলে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে ধান বীজ বিতরণ বরিশালে নেশাজাতীয় ইনজেকশনসহ যুবক আটক মেয়াদ শেষে ক্ষমতায় থাকার সুযোগ আর পাবে না  উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা “ কুয়াকাটায় রাস পূর্ণিমা উৎসব ও গঙ্গা¯œান আজ, কলাপাড়ায় বসেছে পাঁচদিন ব্যাপী রাস মেলা” নড়াইল-যশোর সড়কে ট্রাকের ধাক্কায় কাঁচামাল ব্যবসায়ী নিহত বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর ভিত্তি স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

রাণীশংকৈলে বিঘা বিঘা জমির আমন ‘কারেন্ট পোকা’র পেটে, কৃষক দিশেহারা

  • প্রকাশ : বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০, ১১.২৬ এএম
  • ১৩ বার

এমএন২৪.কম ডেস্ক :ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় আমন ধানের ক্ষেতে বাদামী গাছ ফড়িং বা কারেন্ট পোকার আক্রমণ ব্যাপক হারে দেখা দিয়েছে। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন কৃষক। গতকাল ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ধান ক্ষেত ঘুরে দেখা যায়, কৃষকের ধান ক্ষেতে ছড়িয়ে পড়েছে বাদামী গাছ ফড়িং। যা এলাকার কৃষকের মাঝে কারেন্ট পোকা নামে পরিচিত। উপজেলার অনেক কৃষকের জমিতে পোকার আক্রমণে ধান গাছ শুকিয়ে যাচ্ছে। আবার অনেক কৃষকের জমিতে নতুন করে আক্রমনও বাড়ছে। ফলে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন এ উপজেলার কৃষকেরা।

এ পোকার আক্রমণে চলতি আমন মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। এদিকে কৃষকের আপৎকালীন কৃষি অফিসের কর্মকর্তারা কৃষকদের বিভিন্ন কম্পানির ওষুধ (কীটনাশক) দেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন । এতেও আশানুরূপ ফল পাওয়া যাচ্ছে না না বলে কৃষকরা অভিযোগ করেন। যদিও উপজেলা কৃষি অফিস বলছেন, কারেন্ট পোকার আক্রমণ হলেও তা আমরা নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছি। সেই সাথে কৃষকদের সচেতন করতে মাইকিং, লিফলেট, উঠোন বৈঠক করে পরামর্শ প্রদান অব্যাহত রেখেছি।

অপরদিকে, উপজেলার বনগাঁ ঝাড়বাড়ি গ্রামের কৃষক আইয়ুব আলী প্রায় ১২ বিঘা জমিতে আমন ধান আবাদ করেছেন। এর মধ্যে প্রায় ২ বিঘা জমির আমন ধান কারেন্ট পোকা নষ্ট করে দিয়েছে। একই এলাকার একরামুল মাস্টারের আবাদের প্রায় এক বিঘা, মঞ্জুরুল আলম নামের কৃষকের প্রায় ২ বিঘা, আইয়ুব আলীর প্রায় ২ বিঘা, বাহাদুরের ২ বিঘা জমির আমন ধানের ফসল নষ্ট করেছে কারেন্ট পোকা। তবে কীটনাশক স্প্রে অব্যাহত রেখেছেন তারা।

মহেষপুর কালুগাঁও গ্রামের আবুল হোসেনের ৫ শতাংশ, জরদিসুর রহমানের প্রায় ২ বিঘা, বনগাঁও গ্রামের খায়রুল মাস্টারের ছেলে শাহনেওয়াজের ২ একর ফসল নষ্ট করেছে কারেন্ট পোকা বলে তারা জানান।

শাহনেওয়াজ বলেন, ২ একরে প্রায় ১২০ মণ ধান পাওয়ার কথা থাকলেও ৪০ থেকে ৫০ মণ ধান পেতে পারি। হাটগাঁও আবুল খায়ের ছেলে ইব্রাহিম (পান দোকান) ব্যবসায়ী জানান, তার প্রায় এক বিঘা কারেন্ট পোকার কবলে আক্রান্ত হয়েছে। বনগাঁও আলিফ নামে এক কৃষক জানান তার ৪ থেকে ৫ বিঘা সুমন স্বর্ণা ও হাইব্রিড ধান কারেন্ট পোকায় নষ্ট করেছে। পকম্বা গ্রামের খলিলুর রহমান বলেন, আমার প্রায় এক বিঘার ওপর জমিতে কারেন্ট পোকা ধান নষ্ট করেছে। ভন্ডগ্রামের আব্দুল রশিদ মাস্টার জানান, তারও প্রায় এক বিঘা জমির ধান কারেন্ট পোকা নষ্ট করে ফেলেছে। তবে কীটনাশক অব্যাহত রেখেছেন তিনি।

উপজেলা কৃষি অফিসার সঞ্চয় দেবনাথ জানান, এ বছর উপজেলায় মোট ২১ হাজার ৪ শত ৫০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে আগাম ধান হিসাবে হাইব্রিড ধানের পরিমাণ ৪৮৫০ হেক্টর। কারেন্ট পোকা বিষয়ে তিনি বলেন, যে সকল কৃষকের ধানে কারেন্ট পোকা আক্রমণ করছে আমরা তাদের কীটনাশক স্প্রে করার পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করছি। আশা করি এই কারেন্ট পোকার প্রাদুর্ভাব থেকে উপজেলাকে প্রায় নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি। ইতোমধ্যে হাইব্রিড ধান কাটা প্রায় শেষ। সুমন স্বর্ণাসহ সুগন্ধি ধান মাঠে আছে।

সামাজিক যোগাযোগে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর
themesbazarmuktin141