বৃহস্পতিবার-৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,-রাত ১২:১৮

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

বালিয়াডাঙ্গীতে ৭ ই মার্চ উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত আদমদীঘিতে কাদা কেটে অর্ধ কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগ নোবিপ্রবিতে  সাংবাদিক মোজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন  ভাসানচর আবারো পৌঁছেছে ২২৫৭ রোহিঙ্গা  খানসামায় উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়কের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ ডোমারে সুজনের বিরুদ্ধে রাস্তার গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে। সুধারাম এয়ারফিল্ডে বিমান বাহিনীর বিশেষ এয়ার অপারেশন অনুশীলন

লকডাউন শিথিল হওয়ার পর কলকাতায় বাড়ছে বায়ুদূষণ

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১১ জুন, ২০২০ , ১:০১ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

এমএন২৪.কম ডেস্ক : ফের ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাইছে কলকাতা সহ গোটা রাজ্য।  লকডাউনের বিধিনিষেধ অনেকটাই শিথিল হওয়ায় সোমবার থেকেই শহরের রাস্তায় যান চলাচলের ব্যস্ততা বেড়েছে। আর সেইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে শহরের বায়ুদূষণের মাত্রাও। যে তিলোত্তমার বাতাসে দূষণের পরিমাণ কড়া লকডাউন চলাকালীন প্রচুর পরিমাণে কমেছিল, তাই এখন ফের বাড়তে শুরু করেছে। পরিবেশবিদরা আশঙ্কা করছেন যে এই পরিস্থিতি দ্রুত আরও খারাপ হতে পারে। পরিবেশবিদদের মতে, লকডাউনের সময় শিল্প কলকারখানা ও যানবাহনের চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে বাতাসের গুণমানের যথেষ্টই উন্নতি হয়। সেই পরিস্থিতিই এখন দ্রুত বদলাচ্ছে। এমনিতেই ঘূর্ণিঝড় আমফানের ফলে কলকাতার প্রায় ১৫,৬০০ টি গাছ উপড়ে যাওয়ায় সবুজায়নের অনেক ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে আবার যানবাহন ধীরে ধীরে বেশি পরিমাণে রাস্তায় নামায় কল্লোলিনীর বাতাস ক্রমেই আরও দূষিত হয়ে পড়ছে বলে জানিয়েছেন তাঁরা। পশ্চিমবঙ্গ দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের এক আধিকারিক বৃহস্পতিবার জানান যে, ফোর্ট উইলিয়ামের কাছে যে স্বয়ংক্রিয় বায়ু মনিটরিং স্টেশনটি আছে তাতে দেখা গেছে যে পিএম ১০ এর এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স ৪৮ এ পৌঁছে গেছে। পরিবেশবিদ সোমেন্দ্রনাথ ঘোষ আগামী দিনগুলিতে কলকাতার বায়ুর গুণমান ধীরে ধীরে আরও খারাপ হবে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, “গত বছরের সেপ্টেম্বরে দুর্গাপুজোর সময়ে যেভাবে শহরের বায়ুদূষণের মাত্রা বেড়েছিল তা দেখার পরেও যতটা সতর্ক হওয়া প্রয়োজন তা দেখা যাচ্ছে না। এই পরিস্থিতি থেকে বের হতে খুব তাড়াতাড়ি আমাদের একটি নির্দিষ্ট অ্যাকশন প্ল্যান বের করতে হবে”। আমফান পরবর্তী সময়ে রাস্তার পাশেই ছোট ছোট হোটেল খোলায় এবং গাছের সংখ্যা কমে যাওয়ার কারণে কলকাতার বায়ুদূষণের সূচক যথেষ্ট বৃদ্ধি পাবে বলেও আশঙ্কা করছেন ওই পরিবেশবিদ। এদিকে পরিবেশ কর্মী সুভাষ দত্ত বলেন যে প্রতিদিন রাস্তায় যেভাবে ধীরে ধীরে গাড়ির সংখ্যা বাড়ছে তাতে খুব তাড়াতাড়ি কলকাতার বায়ুদূষণের মাত্রা আগের অবস্থাতেই ফিরতে চলেছে।

Facebook Comments

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ