বুধবার-১২ আগস্ট, ২০২০-২৮ শ্রাবণ, ১৪২৭, সময়: রাত ১:২০, English Version
পুতিনের মেয়ের শরীরে পুশ করা হলো বিশ্বের প্রথম করোনার ভ্যাকসিন বঙ্গবন্ধু হত্যা ছিলো রাষ্ট্রহত্যার ষড়যন্ত্রের অংশ: তথ্যমন্ত্রী পলাশবাড়ীতে ওভারটেক করতে গিয়ে ধাক্কা, প্রাণ গেল হেলপারসহ দুইজনের সামাজিক অনাচার প্রতিরোধে সচেতন ব্যক্তিদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে……..ওসি এসএম বদিউজ্জামান ৩৩ জেলার পৌনে ১০ লাখ মানুষ পানিবন্দি খাগড়াছড়ির রামগড়ে বহুল প্রতিক্ষিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের উদ্বোধন। হিলি স্থলবন্দরের আমদানী-রপ্তানি বন্ধ রয়েছে

সুস্থ ৪৬ লাখ, আক্রান্ত সাড়ে ৮৭ লাখ

প্রকাশ: শনিবার, ২০ জুন, ২০২০ , ৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ :

এমএন২৪.কম ডেস্ক : নভেল করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে। এতে প্রতিনিয়ত মৃতের সংখ্যা বাড়ছে, বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। তবে সুস্থ হয়ে উঠার সংখ্যাও কিন্তু কম নয়। এ পর্যন্ত ৪৬ লাখেরও বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের মোট ৮৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৫০ জন। এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে মারা গেছে ৪ লাখ ৬২ হাজার ৫১৯ জন। তবে ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৪৬ লাখ ২৫ হাজার ৪৪৯ জন।

অর্থাৎ এখনও বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর তুলনায় সুস্থ হয়ে উঠাদের সংখ্যা ১০ গুণের বেশি। এই পরিসংখ্যান আমাদের আশার আলো দেখায়।

২০১৯ এর ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম হামলা হয়েছিল করোনার। চীন থেকে ইরান হয়ে ইউরোপের ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স, ইংল্যান্ড, জার্মানিসহ বিভিন্ন দেশে মরণ কামড় বসিয়েছে করোনা।

ইউরোপকে তছনছ করার মধ্যেই উত্তর আমেরিকায় হামলা শুরু করে করোনা। এই ভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে মারা গেছে মোট ১ লাখ ২১ হাজার ৪০৭ জন। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ২৩ লাখ। অর্থাৎ সেখানে আক্রান্ত ২২ লাখ ৯৭ হাজার ১৯০ জন।

বর্তমানে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলের। শুক্রবারও সেখানে ৫৫ হাজারের বেশি আক্রান্ত এবং আরও ১ হাজার ২২১ জন মারা গেছে। ফলে দেশটিতে মোট আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ লাখ ৩৮ হাজার ৫৬৮ জন। আর মোট মারা গেছে ৪৯ হাজার ৯০ জন। দেশটিতে সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও তুলনামূলক কম। সেখানে মোট সুস্থ হয়েছে ৫ লাখের বেশি মানুষ। আর চিকিৎসাধীন রয়েছে ৪ লাখ ৬৯ হাজার ১১৮ জন।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা এই অবস্থা চলতে থাকলে কিছুদিনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের জায়গা দখল করে নেবে দেশটি। করোনা তালিকায় দীর্ঘদিন ধরে শীর্ষে রয়েছে ট্রাম্পের দেশ।

প্রসঙ্গত, বিশ্বে সবচেয়ে বেশি সুস্থ হওয়ার ঘটনা ঘটেছে জার্মানিতে। সেখানে এ পর্যন্ত ১ লাখ ৯০ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ১ লাখ ৭৪ হাজার ১শ জনই সুস্থ হয়েছেন। মারা গেছেন প্রায় ৯ হাজার মানুষ। বর্তমানে দেশটিতে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা মাত্র ৭ হাজার ৩০০ জন।

এছাড়া সুস্থ হওয়ার তালিকায় এগিয়ে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া, তুরস্ক ও রাশিয়ার মতো দেশগুলো।

এদিকে করোনা তালিকার সেরা পাঁচে থাকা বাকি তিনটি দেশ হচ্ছে যথাক্রমে রাশিয়া (আক্রান্ত ৫ লাখ ৬৯ হাজার ৬৩ জন; মৃত্যু ৭ হাজার ৮৪১ জন, ভারত (আক্রান্ত ৩ লাখ ৯৫ হাজার ৮১২ এবং মৃত্যু ১২ হাজার ৯৭০ জন) যুক্তরাজ্য (আক্রান্ত মোট ৩ লাখ ১ হাজার ৮১৫ জন ও মৃত্যু ৪২ হাজার ৪৬২ জন) ও স্পেন (আক্রান্ত ২ লাখ ৯২ হাজার ৬৫৫ জন ও মৃত্যু ২৮ হাজারের বেশি)।

আফ্রিকার কিছু দেশেও বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যু। তবে আপাতত নিরাপদ অস্ট্রেলিয়া এবং ওশেনিয়া মহাদেশ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) রিপোর্ট বলছে, এবার দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলি যেমন, ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশে করোনার সামাজিক সংক্রমণ ও মৃত্যু রীতিমতো উদ্বেগ তৈরি করছে।

বাংলাদেশে প্রতিদিনই আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যায় রেকর্ড ভাঙছে। শুক্রবার আরও ৩ হাজার ৮০৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ২ হাজার ২৯২ জন। এদিন আরও ৩৮ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৪৩ জনে। আর মোট সুস্থ হয়েছে ৪০ হাজার ১৬৪ জন।

Facebook Comments

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ