শুক্রবার-২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,-সকাল ৯:২৫

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষার নতুন সূচি ঘোষণা রেলে আসছে বড় নিয়োগ এ পর্যন্ত টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখ হিলি আরনু জুট মিলে পাট অধিদপ্তরের অভিযান, ২৫ হাজার টাকা জরিমানা মুজাক্কির হত্যার ঘটনায় ন্যায় বিচারের দাবীতে পরিবারের সংবাদ সম্মেলন ছাতকে বেইলী ব্রীজ ভেঙ্গে যানবাহন চলাচল বন্ধ মিয়ানমারের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার দাবি বিশ্বের ১৩৭টি এনজিওর

হবিগঞ্জ গণপূর্তের অফিস সহায়ক রাহিয়ার দখলে একাধিক বাসা ! নোটিশের তোয়াক্কাই করছেন না

প্রকাশ: বুধবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২১ , ৬:৩২ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

 

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি হবিগঞ্জ গণপূর্ত বিভাগের অফিস সহায়ক রাহিয়ার বিরুদ্ধে বরাদ্দ ছাড়া বাসায় বসবাসের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী রেজাউল বারী তুহিন ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বরাবরে গত ২৪ আগষ্ট ২০২০ইং চিঠির প্রদান করেন। চিঠি সূত্রে জানা যায়, রাহিয়া খাতুন গণপূর্ত বিভাগীয় অফিস সংলগ্ন পূর্ব দিকের ২য় তলার বাসাটি ২০১৮ সালের ০১ অক্টোবর বুঝে নেন এবং একই বছরের ১০ অক্টোবর ওই অফিসের ২নং ওয়ার্কশেডে বরাদ্দ পাওয়ার জন্য আবেদন করেন। কিন্তু তিনি গণপূর্ত বিভাগীয় অফিস সংলগ্ন পূর্ব দিকের ২য় তলার বাসাটি বুঝে নিলেও বরাদ্দ ছাড়াই ২নং ওয়ার্কশেডে বাসায় স্বপরিবারে বসবাস করছেন। ইতোপূর্বেও তিনি একাধিকবার অনেকগুলো বাসা বরাদ্দের জন্য আবেদন করেছেন। কিন্তু ঘন ঘন বাসা পরিবর্তন করেন। চিঠিতে বলা হয়, তিনি এক বাসা থেকে অন্য বাসায় বসবাস করে সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দেওয়ার পায়তারা করছেন এবং একজন লোকের কয়টি বাসা বরাদ্দ প্রয়োজন তা বোধগম্য নয়। তাকে কয়েকবার তার বরাদ্দকৃত বাসায় উঠার জন্য মৌখিকভাবে বলা হলেও তিনি বরাদ্দ ছাড়া বাসায় বসবাস করছেন। কিন্তু তিনি বরাদ্দকৃত বাসার ভাড়া কর্তন করে আসছেন। জানা যায়, রাহিয়া খাতুন যে বাসায় বসবাস করেন সেই বাসার বাসা ভাড়া ও বিদ্যুৎ বিল না দিয়ে বরাদ্দকৃত বাসার বাসা ভাড়া ও বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করছেন। আশে পাশের কিছু লোক নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট আবেদন করলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। এর আগেও তিনি শায়েস্তানগরস্থ পাকা ওয়ার্কশেডে প্রথমে বরাদ্দ নিয়ে কিছুদিন থাকার পর বাসাটি কাগজে কলমে ছাড়লেও ওই বাসাতেই বসবাস করেন। পরবর্তীতে অফিসে অন্য লোক আপত্তি প্রদান করলে আবার বরাদ্দ নেন। কিন্তু কিছুদিন পর আবার বাসাটি ছেড়ে দিয়ে ১৩ মাস বাসায় বিনা ভাড়ায় বসবাস করেন। জানা গেছে রাহিয়া খাতুন বরাদ্দকৃত বাসাটি খালি রেখে রাতের বেলায় ঠিকই আলো জ্লিয়ে রাখেন। এতে করে বিদ্যুতের অপচয় হয়ে থাকে। যা কোনোভাবেই যুক্তিসঙ্গত নয়।

Facebook Comments

সারাদেশ,সিলেট বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ