- Muktinews24- - https://muktinews24.com -

শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের অধিনায়ক লিটন

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:  ১৯, ০, ২১, ৪ ও ৬; সঙ্গে শেষ ম্যাচে উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে একটি স্ট্যাম্পিং- এবারের নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন দাসের পারফরম্যান্স এটুকুই। পাঁচ ম্যাচে মাত্র ১০ গড়ে ৫০ রান এবং একটি স্ট্যাম্পিং। এর বাইরে গ্রাউন্ড ফিল্ডার হিসেবে ধরেছেন তিনটি ক্যাচ। অর্থাৎ সবমিলিয়ে নিউজিল্যান্ড সফরটা একদমই একটা ভালো কাটছে না খেলোয়াড় লিটন দাসের। এরই মাঝে তার কাঁধে বর্তাচ্ছে একটি গুরুদায়িত্ব। দেশের ক্রিকেটের ফ্যান্টাসিক ফাইভ বা পঞ্চপাণ্ডবকে ছাড়া খেলতে নামার ম্যাচে, অধিনায়কত্ব করবেন লিটন দাস- এমনটাই জানিয়েছেন নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশের টিম লিডার জালাল ইউনুস।

আগের দুই ম্যাচ কাঁধের ব্যথায় খেলতে পারেননি মুশফিকুর রহীম। এ ম্যাচেও তার খেলার সম্ভাবনা ছিল খুব কম। জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপে নির্বাচক হাবিবুল বাশার ও টিম লিডার জালাল ইউনুস বুধবার অমন আভাসই দিয়েছিলেন। সেটাই সত্য। শুধু তাই নয়, এ ম্যাচে খেলা হবে না মাহমুদউল্লাহ রিয়াদেরও। বৃহস্পতিবার ভোরে (নিউজিল্যান্ডে তখন দুপুর) জালাল জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, আজকের ম্যাচে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহর কেউই দলে থাকছে না। দুজনেরই ফিটনেসে সমস্যা আছে। মানে ইনজুরিজনিত ম্যাচ ফিটনেসের অভাব। তাই তাদের সার্ভিস আজ পাওয়া যাবে না। মুশফিক টি-টোয়েন্টি সিরিজের শুরু থেকেই নেই। আর অধিনায়ক রিয়াদও আজ খেলতে পারবেন না। এমতাবস্থায় স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন চলে আসে, তাহলে অধিনায়কত্ব করবেন কে? মাশরাফি তো চারবছর আগে থেকেই নেই টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। সাকিব ছুটিতে আর তামিম ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে ফিরে এসেছেন দেশে। নিউজিল্যান্ড গিয়ে মুশফিক পড়েছেন কাঁধের ইনজুরিতে আর এখন মাহমুদউল্লাহও গেলেন ছিটকে। ২০০৯ সালের পর থেকে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তাদের পাঁচজনের বাইরে আর কেউই অধিনায়কত্ব করেননি। তাহলে এখন দীর্ঘ এক যুগ পর এ পাঁচজনের বাইরে টস করতে নামবেন কে? এমন প্রশ্নের জবাবে জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টিম সাউদির সঙ্গে আজ টস করতে দেখা যাবে লিটন দাসকে। আর যদি তাই হয়, তাহলে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের সপ্তম এবং সবমিলিয়ে ১৮তম অধিনায়ক হবেন লিটন দাস। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশকে এখন পর্যন্ত নেতৃত্ব দিয়েছেন শাহরিয়ার নাফিস, মোহাম্মদ আশরাফুল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহীম, মাশরাফি বিন মর্তুজা ও মাহমুদউল্লাহ।