রবিবার-১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-দুপুর ২:৫১

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

বিএনপির রাজনীতি এখন গভীর সংকটে : ওবায়দুল কাদের ‘এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য বিকল্প চিন্তাভাবনা চলছে’ পলাশবাড়ীতে পুলিশি অভিযানে ১৪ জুয়াড়ি আটক সুবর্ণচরে সিএনজি রেসালাহ বাস মুখোমুখি সংঘর্ষে  চালকের মৃত্যু কোম্পানীগঞ্জে পুলিশের মামলায় বাদল অনুসারী ১৬৩ নেতা -কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা! নকল সোনার গহনায় বিয়ে ভেঙ্গে গেল সৈয়দপুরে।  খুলনায় করোনায় ২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৫৬

জুনে হচ্ছে না ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা

প্রকাশ: সোমবার, ৩১ মে, ২০২১ , ৩:১০ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: ফাইল ছবিঘোষণা দেয়া হলেও জুনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা। এবার প্রথমবারের মতো দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা হতে যাচ্ছে। পূর্ব ঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ১৯শে জুন মানবিক, ২৬শে জুন বাণিজ্য ও ৩রা জুলাই বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ উঠিয়ে নেবার পর ১০দিন পর্যন্ত আবেদন করা যাবে বলে সিদ্ধান্ত ছিল। সূত্র- এবিএন

তবে আগের এই পরিকল্পনা আপাতত কার্যকর হচ্ছে না বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। এই বিষয়ে জানতে চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর ও গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর মানবজমিনকে বলেন, জুনে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। আবার আমরা এই মুহুর্তে নতুন কোন তারিখ ঘোষণাও করতে পারছি না। কারণ, সরকার ঘোষিত ‘লকডাউন’ যদি আগামী ৭ই জুন থেকে তুলে নেয় তাহলে প্রাথমিক আবেদন শেষ হবে ১৬ই জুন। এরপর আমাদের অনেক কর্মযজ্ঞ রয়েছে।
যেমন চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ ও আবেদন, পরীক্ষার প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ইত্যাদি। তাই ধরেই নিতে পারি আগামী ১৯শে জুন থেকে পরীক্ষা হচ্ছে না। তিনি আরও বলেন, যেহেতু আমরা জানি না ‘লকডাউন’ আরো বাড়বে কীনা। তাই নতুন করে আপাতত তারিখ ঘোষণা করাও সম্ভব হচ্ছে না। তবে আমরা শিগগির এ ব্যাপারটি নিয়ে মিটিং ডেকে আলোচনা করবো। সেখানে ভর্তি পরীক্ষার পুন:নির্ধারিত তারিখ নির্ধারণ করা হবে বলেও জানান তিনি।
ড. মুনাজ আহমেদ নূর আরো বলেন, যেহেতু ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে সেহেতু এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হবে না। প্রসঙ্গত, এই ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন সর্বোচ্চ দেড় লাখ শিক্ষার্থী। আবেদন শুরু হয় গত ১লা এপ্রিল থেকে। প্রাথমিক আবেদন শেষে ছয় ক্রাইটেরিয়া ক্রমানুসারে ব্যবহার করে চূড়ান্ত মেধাক্রম প্রস্তুত করবে সমন্বিত ভর্তি কমিটি। তারপর মেধা তালিকা প্রকাশ করে চূড়ান্ত আবেদন করতে হবে শিক্ষার্থীদের।


শিক্ষা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_