শুক্রবার-২৫শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-রাত ২:৪৫

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

চার্জার ভ্যান চালকের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার নাটোরে নদীতে ঝাঁপ দেয়ার ৫ ঘন্টা পর অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার নতুন করারোপ ছাড়ায় সাড়ে ৮৭ কোটি টাকার বাজেটের প্রস্তুতি। ফুলবাড়ীতে যুবলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন ডোমারে ৮ জন করোনায় আক্রান্ত লালমনিরহাট মৎস্য বিভাগে ৩.৭৩৯ হেক্টর  পুকুর -জলাশয় পুনঃখনন ও ১৯ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদনের সম্ভাবনা  আশাশুনিতে সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু নিহত

বরিশালে স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলছে কেনাকাটা ,জমে উঠেছে ঈদ মার্কেট

প্রকাশ: শনিবার, ৮ মে, ২০২১ , ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ :

বরিশাল ব্যুরো :
স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলছে নগরীর বিভিন্ন মার্কেটে ঈদের কেনাকাটা। অধিকাংশ ক্রেতা ও বিক্রেতার মুখে নেই মাস্ক। নেই সামাজিক দূরত্ব বজায়ের কোনো বালাই। দোকানগুলোতেও নেই কোনো স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা। ঝুঁকি নিয়েই চলছে ক্রেতা-বিক্রেতায় জমজমাট ঈদের বাজার।শনিবার( ৮ মে) বরিশাল নগরীর বিভিন্ন মার্কেটে গিয়ে সরেজমিনে স্বাস্থ্যবিধি না মানার এমন দৃশ্য দেখা যায়। নগরীর চকবাজার,সিটি মার্কেট, মহিসন মার্কেট,গির্জ্জা মহল্লা মার্কেট, সদর রোডসহ বিভিন্ন দোকান গুলোতে জনসাধারণের উপস্থিতি যেনো করোনার ভয়কেও জয় করেছে।
এ অবস্থিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মার্কেট গুলোতে অধিকাংশ ক্ষেত্রে ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়েই মাক্স ব্যবহারে উদাসীন। কোথাও আবার ধারন ক্ষমতার চেয়ে বেশি মানুষ ঘুরছেন মার্কেটে।
পরিবারকে নিয়ে মার্কেটে আসা রাশেদ বলেন, ভাই আমাদেরকে বলে কি লাভ। দোকানপাট খোলা তাই ঈদের মার্কেট করতে আসছি। ভুলে বাসায় মাস্ক রেখে আসছি, এখন কিনে নেবো। মার্কেটে তো অনেকেই মাস্ক ছাড়া আসছে, কই এতে ব্যবসায়ীরা তো কিছু বলছেন না।
স্কুল ছাত্রী লিমা  বলেন, দেশের অর্থনৈতিক মন্দা কাটাতে সরকার লকডাউন শিথিল করার উদ্যোগ করেছে । কিন্ত মানুষের জীবন এবং জীবিকা দুটোই রক্ষা করা অতীব জরুরি। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন হচ্ছে কি না সেটা সার্বক্ষণিক মনিটর করাও সরকারের দায়িত্বের ভিতর পরে। কারন সংক্রমণ বেড়ে গেলে হাসপাতালে যেমন মিলবে না জায়গা, তেমনি নানাবিধ সংকটে মানুষের মৃত্যুহার বাড়বে কয়েকগুণ।
চকবাজারের এক ব্যবসায়ী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই, কিন্ত মার্কেটে আগত ক্রেতা সাধারণের অনেকেই এ ক্ষেত্রে উদাসীন। লকডাউনে আমাদের ব্যবসার ক্ষতি সীমাহীন, দোকান ভাড়া কর্মচারী বেতন সব মিলিয়ে আমরা অসহায়, কিন্ত তারপরও করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়কেই আরো বেশি সচেতন হতে হবে কারণ প্রতিদিন দেশে সংক্রমণ ও মৃত্যুহার বেড়ে চলছে।
তবে বরিশাল স্বাস্থ্য বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কোভিড সংক্রমণের ঝুঁকি বিবেচনায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এর নির্দেশনা মোতাবেক বাংলাদেশ সরকার যে নির্দেশনা প্রদান করে তা সকলেই কঠোর ভাবে মেনে চলা উচিত। সাথে প্রশাসনের উচিত সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক জনগণকে উদ্ভুদ্ধ করতে প্রচার প্রচারনা চালিয়ে স্বাস্থ্যবিধির প্রতিপালন করা। নগরীর স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সকলের সম্মিলিত উদ্যোগ গ্রহণ করা।
তবে সুশিল সমাজ বলছেন, শুধুমাত্র সরকারি নির্দেশ দিয়ে সংক্রমণ প্রতিরোধ সম্ভব নয়। জনগণের সচেতনতা ও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে সবাইকেই। এ ক্ষেত্রে ব্যাপক সংক্রমণ ঠেকাতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ক্রেতা-বিক্রেতা সবাইকেই সরকারি নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে। কেউ অমান্য করলে তিনি নিজেই আক্রান্ত হতে পারে। এবং সকলেরই রয়েছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি। তাই প্রশাসন সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক এ ক্ষেত্রে আইন প্রয়োগ করতে পারে।


বরিশাল,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_