রবিবার-১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-দুপুর ২:০৩

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

‘এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য বিকল্প চিন্তাভাবনা চলছে’ পলাশবাড়ীতে পুলিশি অভিযানে ১৪ জুয়াড়ি আটক সুবর্ণচরে সিএনজি রেসালাহ বাস মুখোমুখি সংঘর্ষে  চালকের মৃত্যু কোম্পানীগঞ্জে পুলিশের মামলায় বাদল অনুসারী ১৬৩ নেতা -কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা! নকল সোনার গহনায় বিয়ে ভেঙ্গে গেল সৈয়দপুরে।  খুলনায় করোনায় ২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৫৬ ফ্রান্সে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ৩

প্রমত্তা পদ্মা যেন সান্তাহারে সরদার পুকুর! পাড় নির্মাণ করার দাবী এলাকাবাসীর

প্রকাশ: সোমবার, ৭ জুন, ২০২১ , ১০:২৩ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ :

এএফএম মমতাজুর রহমান আদমদীঘি (বগুড়া ) প্রতিনিধি ঃ
প্রতি বছরই পদ্মার ভাঙনের কথা আমরা শুনি। ভাঙনের সেই দুঃখ ঝড়া সময়ে অসংখ্য মানুষের ক্রন্দন ধ্বনি ধ্বনিত হয় এই বাংলাদেশে। প্রতি বছর সর্বনাশা পদ্মার ভাঙনে জীবনের সবটুকু স্বপ্ন হারিয়ে নিঃস্ব হয় অগণিত মানুষ। তাদের গগন বিদারী হাহাকারের প্রতি ধ্বনি বিদির্ণ করে আমাদের হৃদয়। বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের ১নং ওয়ার্ডে বশিপুর সরদার পাড়ায় অবস্থিত সরদার পুকুর নামে পরিচিত এই পুকুরটি যেন প্রমত্তা পদ্মার দ্বিতীয় সংকলন। পরিকল্পিত উপায়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে পৌরসভার সমস্ত নিয়ম বিধি অগ্রাহ্য করে মাছ চাষ করে পুকুরটির পাড়ের বসত ভিটা, কবরস্থান আজ পুকুরটির জলগর্ভে বিলীন হওয়ার পথে। পৌরবিধি অনুযায়ী প্রতি তিন বছর পরপর পাড় নির্মাণ সহ সমস্ত সুযোগ সুবিধা তৈরি করে পুকুরে মাছ চাষের নিয়ম। অথচ আবাসিক এলাকায় পুকুরটির অবস্থান হওয়া স্বত্বেও বছরের পর বছর পাড় নির্মাণ না করে, পরিকল্পিত উপায়ে অতিরিক্ত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না করে মাছ চাষ করছে কিছু মানুষ।
সরেজমিনে দেখা গেছে, পুকুরটির পশ্চিম পাড়ে অবস্থিত জিল্লুর রহমানের বাড়িটি, তাদের পারিবারিক কবরস্থানটি আজ হুমকির সম্মুখীন। তাদের বসত ভিটার প্রায় অর্ধেক অংশ জলগর্ভে বিলীন হওয়ার পথে। বশিপুর সরদার পাড়া মহল্লার বাসিন্দা মাহফুজুর রহমান লিটন বলেন, জন নিরাপত্তা বিঘিœত হওয়ার দরুণ অতি স্বত্বর সমস্ত মাছ চাষ বন্ধ পূর্বক পুকুরের পাড় নির্মাণের ব্যবস্থা গ্রহন করতে পৌর মেয়রের দৃষ্টি আর্কষন করছি। এ ব্যাপারে ওই এলাকার জিল্লুর রহমান বলেন আমরা বার বার পুকুরের মালিকদের বলা স্বত্বেও তারা এ ব্যাপারে কর্ণপাত করছেন না। বরং মাছ চাষের জন্য তিন বছর মেয়াদী ইজারা দিচ্ছেন। এতে আমি নিজ উদ্যোগে মাটি ভরাট করলেও তাদের পাড় না থাকার জন্য ধ্বসে যাচ্ছে। আমি পৌর মেয়র বরাবর একটি আবেদন দিয়েছি। পৌর মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু আবেদন পাওয়ার কথা নিশ্চিত করে বলেন, তড়িৎ গতিতে আবেদন আমলে নিয়ে মালিকদের বরাবর নোটিশ দিয়েছেন। আগামীকাল তাদের সবাই কে ডেকেছি। পৌরবিধি অনুযায়ী পুকুরের পাড় বেঁধে দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা অন্তে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হবে।


রংপুর,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_