বৃহস্পতিবার-২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-রাত ৮:৩৪

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

ঝিনাইগাতী হাতীবান্ধা ইউনিয়নে রাস্তার সিসি ঢালাই কাজের উদ্বোধন ঝিনাইগাতীতে ইউনিয়ন  পরিষদের রাস্তা বন্ধ করে বিল্ডিং নির্মানের  অভিযোগ : দাপ্তরিক কর্মকান্ড ব্যাহত  ৮৫ দেশে করোনার ডেলটা ধরন: স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা ফকিরহাটে করোনা উপসর্গ নিয়ে ২নারীর মৃত্যু পার্বতীপুরে রিক্সা-ভ্যান চালিয়ে দুই হাজার পরিবারের সংসার চলে বিমানের ১০ কর্মকর্তার বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দুদক সারাদেশে ১৪ দিন শাটডাউনের সুপারিশ

বরিশালে স্ত্রীকে বেড়াতে নিয়ে এসে হত্যা করে গুম করলো স্বামী

প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১ জুন, ২০২১ , ১২:০০ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

মনির হোসেন,বরিশাল সংবাদদাতা ॥
বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলায় শশুর বাড়িতে স্ত্রীকে বেড়াতে নিয়ে এসে হত্যার পর মৃতদেহ গুম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘাতক স্বামী গৌরনদীর বাটাজোর ইউনিয়নের হরহর গ্রামের আব্দুল করিম আকন্দের ছেলে সাকিব হোসেন (২৮)।তিনি বগুড়া জাহাঙ্গীরাবাদ সেনানিবাসের এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী হিসেবে কাজ করছেন।পুলিশের হাতে আটকের পর পরিচ্ছন্নতা কর্মী সাকিব হোসেন (২৪) তার স্ত্রী নাজনীন আক্তারকে (১৯) হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। সাকিব হোসেন পুলিশকে বলেন, শ্বাসরোধ করে হত্যার পর গৌরনদীর বাটাজোর ইউনিয়নের হরহর গ্রামের তার বাবার ঘরের পাশে সেফটি ট্যাংকিতে স্ত্রী নাজনীন আক্তারের মৃতদেহ গুম করেছেন।এদিকে সাকিব হোসেনের কথার সূত্র ধরে মঙ্গলবার (০১ জুন) সকালে সেফটি ট্যাংকি সহ আশপাশের এলাকায় তল্লাশি শুরু করে বগুড়া সদর থানা পুলিশের একটি দল।তবে নাজনীন আক্তরের মৃতদেহের কোনো সন্ধান না মিললেও নাজনীন আক্তারের ওড়না ও শরীরের চামড়ার কিছু অংশ পাওয়া গেছে। নাজনীন আক্তার বগুড়া সদরের সাবগ্রাম (উত্তরপাড়া) এলাকার মো. আব্দুল লতিফের মেয়ে।নাজনীন আক্তারের পরিবার জানায়, গত ২৪ মে থেকে নিখোঁজ ছিলেন। এ ঘটনায় গত ২৬ মে বাবা আব্দুল লতিফ বগুড়া সদর থানায় একটি সাধারন ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন। বিষয়টি জানতে পেরে সেনানিবাস কর্তৃপ গতকাল সোমবার সাকিব হোসেনকে পুলিশে সোপর্দ করেন।সাধারন ডায়েরি (জিডি) সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ধর্মীয় রীতি মেনে সাকিব হোসেনের সঙ্গে নাজনীন আক্তারের বিয়ে হয়। তবে বিয়ের পর নাজনীন তার বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকতেন।এ ব্যাপারে গৌরনদী থানার পরিদর্শক মো. তৌহিদুজ্জামান জানান, সকালে সাকিবকে সঙ্গে নিয়ে বগুড়া সদর থানা পুলিশের একটি দল গৌরনদী আসেন। এরপর গৌরনদী থানা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে তারা নাজনীনের মৃতদেহ উদ্ধারে বাটাজোর ইউনিয়নের হরহর গ্রামে যান। আগেই এ খবর পেয়ে সাকিবের বাবা-মা সেখান থেকে পালিয়েছেন। সকাল ১০ টা থেকে প্রথমে সেফটি ট্যাংকি পরিস্কার করে তার মধ্যে তল্লাশি করা হয়।কিন্ত তবে সেফটি ট্যাংকির ভেতর থেকে নাজনীন আক্তারের ওড়না ও শরীরের চামড়ার কিছু অংশ পাওয়া গেছে। মৃতদেহ সেখানে নেই। বাড়ির আশেপাশে তল্লাশি অব্যাহত রয়েছে।


বরিশাল,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_