বৃহস্পতিবার-২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-রাত ৯:১১

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

শিরোনামঃ আড়াই কোটি টাকা ভ্যাট দিল ফেসবুক ১৮ বছর বয়সীদের টিকার নিবন্ধন ৮ আগস্ট থেকে বিধিনিষেধ: রাজধানীতে ৫৬৮ জন গ্রেফতার শ্রীমঙ্গলে করোনা আক্রান্ত হয়ে ভাই বোনের মৃত্যু শ্রীমঙ্গলে রাজাপুর গ্রাম থেকে গুইসাপ উদ্ধার, পরে বনে অবমুক্ত ডোমারের চিলাহাটি রেলষ্টেশন ট্রাইলে ভারতীয় ২টি পাওয়ার ইঞ্জিন। সুজানগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার টিকা গ্রহীতাদের উপচেপড়া ভীড়

৭২ ঘন্টার মধ্যে প্রার্থীকে এলাকা ছাড়া করা হবে

প্রকাশ: বুধবার, ১৬ জুন, ২০২১ , ১:১৭ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

মনির হোসেন,বরিশাল ব্যুরো ॥ আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে প্রশাসনকে সাথে নিয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও তার সমর্থকদের নির্বাচনী এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী। মঙ্গলবার রাতে ও বিকেলে দুইটি নির্বাচনী উঠান বৈঠকে প্রকাশ্যে এ হুমকি দেয়া হয়েছে।
ফলে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে তৈরি হয়েছে শঙ্কা এবং অনিশ্চয়তা। বড়ধরনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কায় চরম উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার মধ্যে রয়েছেন সাধারণ ভোটাররা। ঘটনাটি জেলার এককালের সর্বহারা অধ্যুষিত বাবুগঞ্জ উপজেলার সাবেক আগরপুর বর্তমান জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের।
আগামি ২১ জুন ওই ইউনিয়নের নির্বাচনে ইভিএমএ ভোটগ্রহণ করা হবে। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী হয়েছেন সরদার তারিকুল ইসলাম তারেক ও আনারস মার্কা নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের আপন চাচাতো ভাই অধ্যাপক কামরুল আহসান হিমু খান।
বুধবার সকালে স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল আহসান হিমু খান অভিযোগ করেন, তার প্রতিদ্বন্ধী নৌকা মার্কার প্রার্থী তারিকুল ইসলাম তারেক তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মী ও ভোটারদের কাছ থেকে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় নির্বাচনকে ঘিরে প্রশাসনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে নানা ষড়যন্ত্র করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা রাতে ইউনিয়নের জাহাপুর ও বিকেলে রমজানকাঠীর বুধিঘাটা এলাকার নির্বাচনী উঠান বৈঠকে তারিকুল ইসলাম তারেক তার বক্তব্যে প্রকাশ্যে বলেন, আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে প্রশাসনকে সাথে নিয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুল ইসলাম হিমুকে এবং ১৮ জুনের মধ্যে তার সমর্থকদের নির্বাচনী এলাকা ছাড়া করা হবে। এ ব্যাপারে তিনি (হিমু খান) প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নির্বাচনের দিন যতোই ঘনিয়ে আসছে জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের সাধারণ ভোটারদের মধ্যে সীমাহীন উদ্বেগ উৎকণ্ঠা ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধ ভোটার আইয়ুব আলী বলেন, বিগত তিনটি নির্বাচনে কেন্দ্রে যাইয়াও নিজের পছন্দের প্রার্থীকে কখনো ভোট দিতে পারি নাই। একবার গিয়ে শুনি আমার ভোট আগেই দেওয়া হইয়া গেছে। পরের দুইবারে ব্যালট পেপার দেখাইয়া ভোট দেওয়া লাগছে। পোলাপান দাঁড়াইয়া ছিল পাহারায়, যাতে অন্য মার্কায় ভোট না দেই। এবার নাকি মেশিনে ভোট হইবে। হুনতেছি এবারও নাকি দেহাইয়া ভোট দেওয়া লাগবে। কৃষক আইয়ুব আলীর মতোই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের সিংহভাগ সাধারণ ভোটাররা। বাবুগঞ্জ থানার ওসি মোঃ মাহবুবুর রহমান জানান, জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নে সহিংসতামুক্ত সুষ্ঠু নির্বাচন করতে পুলিশ বদ্ধ পরিকর।


বরিশাল,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_