বুধবার-২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-রাত ৯:৩৫

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

শিরোনামঃ কোভিশিল্ড টিকার স্বীকৃতি দিল যুক্তরাজ্য বিদেশে কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ না করার ঘোষণা চীনের টস জিতে ব্যাটিংয়ে হায়দরাবাদ টিকার জন্য ১১ কোটি সিরিঞ্জ কেনার প্রস্তাবে অনুমোদন শিগগিরই আইপি টিভির রেজিস্ট্রেশন দেওয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী কক্সবাজারে ট্রেন চলবে আগামী বছর ডিসেম্বরে : রেলমন্ত্রী ফরাসি মিডিয়ার রোষানলে মেসি

গেল ৬ মাসে পরিচালন মুনাফা বেড়েছে ব্যাংকের

প্রকাশ: বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১ , ১১:২২ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ :

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: করোনার দ্বিতীয় ধাক্কায় দেশের অর্থনীতির স্থবিরতা নিয়ে চিন্তিত ব্যাংকিং খাত। প্রথম ধাক্কার পর অর্থনীতি সচল হওয়ায় সুফলও পাওয়া গেছে কিছুটা। যার ফলে ২০২১ সালের প্রথম ছয় মাসে বেড়েছে ব্যাংকের পরিচালন মুনাফাও। দ্বিতীয় ধাপে কি হবে তা নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর।

 

করোনা সংক্রমণ সামলাতে আবারও দেশব্যাপী চলছে কঠোর বিধিনিষেধ। রপ্তানিমুখী ও উৎপাদনশীলখাত ছাড়া প্রায় বন্ধ দেশের অভন্ত্যরীণ শিল্প ব্যবসা বাণিজ্য। মার্কেট, শপিংমল বন্ধ থাকায় আবারো থেমে গেছে দেশের অভ্যন্তরীণ অর্থনীতির চাকা। এরমধ্যে আয় ও ব্যয়ের হিসাব মেলাতে দুশ্চিন্তা বাড়ছে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের। এ অবস্থা দীর্ঘদিন চলতে থাকলে আগামী দিনে কি হবে তা নিয়ে চিন্তিত দেশের ব্যাংকাররাও।

 

সীমান্ত ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মোখলেসুর রহমান বলেন, ‘একটা বড় ধাক্কা যেটা এসএমই’র জন্য, যদি দেশে লকডাউন দেয়া হয় ব্যবসা-বাণিজ্য সব বন্ধ থাকে। এবং ক্যাশ ফ্লোর অভাব হয়। তখন এসএমই গুলো খেলাপী ঋণে পরিণত হয়।’

 

২০২১ সালের প্রথম ৬ মাসের হিসাবে দেখা যায়, পরিচালন আয়ের দিক দিয়ে ভালো অবস্থানে আছে ব্যাংকগুলো। প্রাথমিক হিসাবে প্রায় বেশির ভাগ ব্যাংকেরই মুনাফা বেড়েছে। ব্যাংকাররা মনে করেন, করোনার প্রথম ধাক্কা সামলে অর্থনীতির যে গতি ফিরতে শুরু করেছিল এটি তারও সুফল।

 

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী সৈয়দ মাহবুবুর রহমান জানান, ‘ক্যাপিটাল মার্কেট থেকে কিছুু বেনিফিট পাওয়া গেছে। এসময় অর্থের তারল্যও ভালো ছিলো। সরকারের নানা ইন্স্ট্রুমেন্টে তারা বিনিয়োগ করেছে। এসময় আমরা দেখেছি ট্রেডও বাড়ছিলো। কোভিডের ধাক্কার পর কিন্তু আমরা এগুচ্ছিলাম।’

 

তবে দ্বিতীয় ধাক্কার ভয়াবহতা বাড়ছে। ধীরে ধীরে বাড়ছে সংক্রমণ সামলাতে কঠোর বিধিনিষেধের মেয়াদও। অর্থনীতিতে এর প্রভাব নিয়ে চিন্তিত ব্যাংকারাও।

 

সৈয়দ মাহবুবুর রহমান আরো জানান, ‘লকডাউন তো বাড়িয়েছে। আমার তো মনে হয় এটা আরো বাড়বে। সামনে গরুর বাজার তৈরি হচ্ছে। আমি জানিনা এটা এখন কিভাবে হচ্ছে। সরকার যতই কঠোর হোক না কেন, ওই মার্কেটে পারবেনা বিধিনিষেধ ম্যানেজ করতে। পুরো বিশ্ব খুলে যাচ্ছে, আমরা যদি খোলাও না তাকি তাহলে আরেক সমস্যা হবে।’

 

বছর শেষে ব্যাংকের মুনাফার চিত্র কেমন থাকবে তা নির্ভর করবে করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা সামলে ব্যবসা বাণিজ্য কত দ্রুত সচল হয় ওপর।


অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_