রবিবার-১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-দুপুর ১২:১২

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

শিরোনামঃ বার্নলিকে হারিয়ে জয়ে ফিরল ম্যান সিটি রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ম্যানইউকে হারাল লেস্টার ফিরমিনোর হ্যাটট্রিকে লিভারপুলের গোল উৎসব দেশে টিকা দেওয়া হয়েছে ৫ কোটি ৬৯ লাখ ৭২ হাজার ডোজ মমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ৩ জনের মৃত্যু ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা দুপুরে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়কে দুর্নীতির কবল থেকে রক্ষার দাবি

শ্রীমঙ্গলে সীমান্ত এলাকার চাষীদের সাথে বিজিবি’র মতবিনিময়

প্রকাশ: শনিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২১ , ২:১৮ অপরাহ্ণ , বিভাগ :

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:
শ্রীমঙ্গল উপজেলার সিন্দুরখান ইউনিয়ন ও রাজঘাট ইউনিয়নের প্রায় ৫০০ লেবু ও পান চাষীদের সাথে বাংলাদেশ বর্ডারগার্ড ( বিজিবি)ও হবিগঞ্জ ৫৫ ব্যাটালিয়নের মত বিনিময় অনুষ্টিত হয়েছে। বিজিবি হবিগঞ্জ ৫৫ ব্যাটালিয়ানের আয়োজনে অনুষ্টানে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ ৫৫ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্নেল এস এন এম সামিউন্নবী চৌধুরী পিবিজিএম পিবিজিএমএস । শনিবার সকাল ১০টায় সিন্দুরখান ইউনিয়ন কমপ্লেক্্ের আয়োজিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৫৫বিজিবি’র উপ-অধিনায়ক মেজর মো. তৌফিকুর রহমান, সিন্দুরখান ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার হামিদুর রহমান, সিন্দুরখান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল হেলাল, রাজঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিজয় বুনার্জি, সাংবাদিক ইয়াছিন আরাফাত রবিন, মো, ফুল মিয়া (মহালদার) শিক্ষক জসিম উদ্দিনসহ সীমান্ত এলাকার বাগান চাষীরা বক্তব্য রাখেন। লে: কর্নেল এস এন এম সামিউন্নবী চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ ও ভারত সীমান্ত এলাকায় আন্তর্জাতিক সীমারেখা চিহ্ন হিসেবে সীমানা পিলার দেয়া আছে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর অনেকগুলি কাজের মধ্যে একটি বড় এচিভমেন্ট ছিল ১৯৭৫ সালের মুজিব-ইন্দিরা সীমান্ত চুক্তি। সেই অনুযায়ী ভারত-বাংলাদেশ সীমানা পিলারের দু’পাশে দেড়শ’ গজ করে মোট ৩০০ গজ এলাকায় সাধারণ জনগণের চলাচলে আইনত বিধিনিষেধ রয়েছে। তাই সীমান্ত এলাকায় আইন মেনে চাষাবাদ ও চলাচল করতে জনসাধারণের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। পরে সীমান্ত এলাকার নোমেন্সল্যান্ড এ চাষাীদের ব্যাপারে গণশুনানী অনুষ্টিত হয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভারতীয় সীমান্তের নোমেন্সল্যান্ড এলাকায় প্রায় ৫শতাধিক চাষী লেবু আনারস ও পান চাষ করে তাদের জিবিকা নির্বাহ করে আসছে। যদিও নোমেন্সল্যান্ডে চাষাবাদ বেআইনী সেহেতু বিজিবি কতৃক চাষীদের আর ওই এলাকায় প্রবেশ না করতে বলা হয়। এদিকে এ নিষেধাজ্ঞার ফলে ওখানকার জমিতে চাষীরা যে ফসল ফলন করেছেন সেগুলো আনতে না পারলে ক্ষতির মুখে পড়বেন প্রায় ৫শতাধিক চাষী। ৫৫ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্নেল এস এন এম সামিউন্নবী চৌধুরী পিবিজিএম পিবিজিএমএস জানান, নোমেন্সল্যান্ড এ কোনো দেশের কেউ অবাধে যাতায়াত করা বেআইনি বলে চাষীদের নিরাপত্তার সার্থে ওই এলাকায় না যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে। লেবু চাষীরা জানান, সীমান্ত রেখার নোমেন্সলেন্ড এলাকায় যুগযুগ ধরে পান, আনারস ও লেবু চাষাবাদ করে আসছে তাঁরা। বিজিবির নিষেধাজ্ঞার কারণে তাদের আবাদ করা ফসল আনতে পারছেন না। ফসল আনতে না পারায় এখন তাঁরা পথে বসার উপক্রম হয়েছে।

 


ঢাকা,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_