রবিবার-৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-সকাল ৭:১২

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

শিরোনামঃ বঙ্গবন্ধুর শাসনব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা করা উচিত : মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী আগামীকাল থেকে টিসিবি’র পণ্য বিক্রি কার্যক্রম শুরু রাজনগরে অপহৃত এক শিশুকে সিলেট থেকে উদ্ধার ক্যাটরিনার বিয়েতে দাওয়াত পাননি সালমান-রণবীর! নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশ দল ঘোষণা গুরুতর আহত প্রিয়াঙ্কা শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষে শিবগঞ্জের অভিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিভাবক ও সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আগামী বছর থেকে পিক আওয়ারে পরীক্ষা না নেওয়ার চিন্তা শিক্ষামন্ত্রীর

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২১ , ৩:৩৫ অপরাহ্ণ , বিভাগ :
মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: আগামী বছর থেকে পিক আওয়ারে পরীক্ষা না নেওয়ার চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। আজ বৃহস্পতিবার নিজ দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব তথ্য জানান।

 

সড়কে যানজটের কারণে এসএসসি পরীক্ষা শুরুর ১৫ মিনিট পরে কিছু পরীক্ষার্থী কেন্দ্রে এসেছে- সাংবাদিকের এমন প্রশ্নে কতিনি বলেন, আমাদের কথা ছিল পরীক্ষার হলে সাড়ে ৯টার মধ্যে প্রবেশ করবে। তারপরে যদি কেউ প্রবেশ করে, পরীক্ষা শুরুর ১৫ মিনিট বা আধাঘণ্টা পরে যদি আসে, এখন দেড় ঘণ্টার পরীক্ষা। তাহলে কিন্তু আসলেই একটা সমস্যা। তারপরও আমরা বিষয়টা খতিয়ে দেখব যে, কী করা যায়। কিন্তু যেখানে দেড় ঘণ্টার পরীক্ষা, যদি তিন ঘণ্টার পরীক্ষা হতো তাহলে কেউ এক ঘণ্টা পরে আসতেন, আজকে বিশেষ পরিস্থিতির জন্য না।

 

তিনি বলেন, এমনিতেও পরীক্ষা শুরু হয়ে যাওয়ার পরে ২-৪ মিনিট পর যদি কেউ আসে কখনও কখনও অ্যালাও করা হয়, তারপরে অ্যালাও করা হয় না। তারপরও বিশেষ পরিস্থিতি আমরা খতিয়ে দেখব।

 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এসএসসি, এইচএসসির মতো পাবলিক পরীক্ষার গুরুত্ব পরীক্ষার্থী থেকে শুরু করে তার পুরো পরিবার-সমাজ সবার কাছেই। সে কারণেই এই পরীক্ষাগুলোর সময় পরীক্ষার্থীদের যাতায়াতে বিঘ্ন হয়, এরকম কোনো ধরনের কোনো কিছুই কারো করা উচিত নয়। তবে সবকিছু কিন্তু আইন করে, নিয়ম করে নিষিদ্ধ করা করা যায় না। এগুলো আমাদের সবার মধ্যে সচেতনতা তৈরি করা, আমাদেরও কথা বলা এবং জানানো জরুরি। আমরা এ ব্যাপারে আমাদের পক্ষে যা কিছু করণীয় আমরা সেটি চেষ্টা করব।

 

সকাল ১০টায় পরীক্ষা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আগামী বছর থেকে আমরা চেষ্টা করতে পারি, বিশেষ করে যেদিন সবচাইতে বেশি পরীক্ষার্থী থাকে অর্থাৎ মূল বিষয়গুলো বা আবশ্যিক বিষয়গুলোর যে পরীক্ষা হয় সেদিন পরীক্ষাগুলো আরেকটু পরে শুরু করা যায় কিনা, সে ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্ত নেব আগামী বছর থেকে।

 

তিনি বলেন, এবার এ পরীক্ষায় অংশ নেবেন ১৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬৯০ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ছাত্র ৭ লাখ ২৯ হাজার ৭৩৮ জন এবং ছাত্রী ৬ লাখ ৬৯ হাজার ৯৫২ জন। এবার সাধারণ ৯টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি পরীক্ষা দেবেন ১১ লাখ ৩৮ হাজার ১৭ জন। তাদের মধ্যে ছাত্র ৫ লাখ ৬৩ হাজার ১১৩ জন এবং ছাত্রী ৫ লাখ ৭৪ হাজার ৯০৪ জন। মাদরাসা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষা দেবেন ১ লাখ ১৩ হাজার ১৪৪ জন। তাদের মধ্যে ছাত্র ৬১ হাজার ৭৩৮ জন এবং ছাত্রী ৫১ হাজার ৪০৬ জন। এইচএসসি (বিএম/ভোকেশনাল) পরীক্ষা দেবেন ১ লাখ ৪৮ হাজার ৫২৯ জন। তাদের মধ্যে ছাত্র ১ লাখ ৪ হাজার ৮২৭ জন এবং ছাত্রী ৪৩ হাজার ৬৪২ জন।

 

বৈঠকে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাবকমিটির সভাপতি অধ্যাপক নেহাল আহমেদ এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

 

এবিএন


ঢাকা,সারাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_