তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৫০ অপরাহ্ন

মস্তিষ্কের কার্য ক্ষমতা বৃদ্ধি করে ডার্ক চকোলেট

  • প্রকাশ রবিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২১, ১১.৫০ এএম
  • ৭২ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: ডার্ক চকোলেট খেতে অনেকেই খুব পছন্দ করেন। আপনার মন খারাপ থাকলে তা এক নিমিষেই উড়িয়ে দিতে পারে এই চকোলেট। অনেকে আবার ওজন বৃদ্ধির ভয়ে চকোলেট খাওয়া থেকে বিরত থাকেন। তবে পরিমিত খেলে তাতে ওজন বৃদ্ধির কোনো ভয় থাকে না, বরং ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে। একইসঙ্গে সুস্থতা দেয় শরীরের নানা সমস্যার।

চলুন জেনে নেই ডার্ক চকোলেটের উপকারিতা সম্পর্কে- অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্যে ভরপুর ডার্ক চকোলেটে আছে ফ্লেভানলস নামক উপাদান, যা নাইট্রিক অক্সাইডের উৎপাদন বাড়াতে কাজ করে। আমাদের পুরো শরীরে রক্ত প্রবাহ বাড়াতে এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে এই চকোলেট। ফলস্বরূপ হার্টের সমস্যাও কমে যায় অনেকটাই। ডার্ক চকোলেটে আছে প্রচুর ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন, জিঙ্ক, কপার ও ফসফরাস। এসব উপাদান আমাদের শরীরের জন্য নানা দিক থেকে উপকারী। তাই সুস্থ থাকার জন্য ডার্ক চকোলেট খাওয়া জরুরি। ডার্ক চকোলেট হার্ট সুস্থ্য রাখতে সহায়তা করে,

বিভিন্ন গবেষণা থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী বিশ্বে হৃদরোগে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। শুধু বয়স্কদের ক্ষেত্রেই নয়, কম বয়সীরাও আক্রান্ত হচ্ছে এই অসুখে। আপনি যদি নিয়মিত ডার্ক চকোলেট খান তবে হৃদরোগের ভয় অনেকটাই কমে যাবে। এর অ্যান্টি অক্সিডেন্টস বৈশিষ্ট্য হার্টের অসুখে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমিয়ে দেবে ৫৭ শতাংশ। এটি আমাদের শরীরের খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রাও কমাতে সাহায্য করে। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

ডার্ক চকোলেট খেলে মন ভালো হয় একথা অনেকেরই জানা। এর কারণ কি তা জানেন? এর কারণ হলো ডার্ক চকোলেটে আছে কিছু কার্যকরী উপাদান। আপনি যখন ডার্ক চকোলেট খাবেন তখনই মস্তিষ্কের সেরেব্রাল কর্টিকাল রিজিওনে গামা ফ্রিকোয়েন্সির মাত্রা অনেকাংশে বেড়ে যাবে। ফলে বৃদ্ধি পাবে মস্তিষ্কের ক্ষমতা এবং বাড়বে স্মৃতিশক্তি।

ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষজ্ঞরা বলছেন ডার্ক চকোলেট খেলে নিয়ন্ত্রণে থাকবে আপনার ওজন। এই চকোলেটে আছে অনেক উপকারী উপাদান যা আমাদের রক্তের সঙ্গে মিশে মেটাবলিজম রেটের উন্নতি করে থাকে। ফলে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মেদ জমার আশঙ্কা অনেকটাই কমে যায়। চকোলেট খেলে তা দীর্ঘ সময় পেট ভরিয়ে রাখে, বারবার ক্ষুধা লাগার প্রবণতা কমে। ফলে খাওয়াও কম হয়। এতে ওজন বৃদ্ধির আশঙ্কা কমে যায় অনেকটাই।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam