তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৫৬ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ :
আদমদীঘিতে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা তৃতীয় দিনে ৯২ হাজারের বেশি টিকিট বিক্রি শেখ হাসিনার বারতা নারী পুরুষ সমতা  উলিপুরে চেক বিতরণ অনুষ্ঠান  মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের মাসিক কল্যাণ সভা ও ক্রাইম কনফারেন্স অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে জিএম কাদেরের ঈদ শুভেচ্ছা ফুলবাড়ীতে নেসকো কোম্পানীর বিদ্যুৎ নিয়ে ভেলকিবাজি এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আগস্টে নোয়াখালীতে উদ্বোধনের ২৪ ঘন্টা না যেতেই বিআরটিসি বাসঃ পুনরায় চালুর দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের লালমনিরহাট ক্যাম্পাসের একাডেমিক সেশন উদ্বোধন করেন বিমান বাহিনী প্রধান সুবর্ণচরের একাধিক মামলার আসামি লাল আজাদ গ্রেপ্তার

শুভ জন্মদিন প্রিয়দর্শিনী

  • প্রকাশ বুধবার, ৩ নভেম্বর, ২০২১, ৫.২৫ এএম
  • ২৯ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: বাংলা চলচ্চিত্র ইতিহাসের অন্যতম সফল নায়িকা মৌসুমী। পুরো নাম আরিফা পারভীন জাহান মৌসুমী। ছোট থেকে বড় সবাই চেনে এই অভিনেত্রীকে। ‘প্রিয়দর্শিনী’ খ্যাত এই নায়িকার জন্মদিন আজ।

৪৮ পেরিয়ে ৪৯ বছরে পা দিয়েছেন মৌসুমী। ১৯৭৩ সালের ৩ নভেম্বর খুলনায় জন্ম। বাবা নাজমুজ্জামান মনি এবং মা শামীমা আখতার জামান দম্পতির বড় মেয়ে তিনি।

একাধিক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রীর ছোট বোন ইরিন জামানও একসময় চলচ্চিত্রের মানুষ ছিলেন। তবে বহু বছর ধরে তিনি যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী।

দাম্পত্য জীবনে মৌসুমী চিত্রনায়ক ওমর সানীর স্ত্রী। ছেলে ফারদিন এহসান স্বাধীন এবং মেয়ে আইজাকে নিয়ে তাদের দুই যুগেরও বেশি সময়ের সংসার।

বিশেষ এই দিনটিতে দেশে নেই মৌসুমী। একমাত্র মেয়ে ফাইজাকে নিয়ে গত ১৪ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন নায়িকা। এই ধনী দেশটির নাগরিক ফাইজা। গত ২৯ অক্টোবর তার ১৮ বছর পূর্ণ হয়েছে। এ কারণে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে তার আইডি কার্ড ও অন্যান্য কাগজপত্রের জন্য আবেদন করতেই বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে আছেন মা-মেয়ে।

স্বামী-সন্তানদের সঙ্গে অভিনেত্রী মৌসুমী।

এ বিষয়ে ওমর সানী গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, মেয়েকে নিয়ে তিন সপ্তাহ যুক্তরাষ্ট্রে থাকবেন মৌসুমী। মেয়ের কাজের পাশাপাশি সময় কাটাবেন মা এবং বোন ইরিন জামানের সঙ্গে। তাই জন্মদিনটাও সেখানেই কাটাবেন।

জানা গেছে, স্ত্রী ও মেয়ের সঙ্গে ওমর সানীরও যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভিসা জটিলতায় তিনি যেতে পারেননি। ফলে আজ ৩ নভেম্বর মৌসুমীর জন্মদিনেও পাশে থাকা হলো না নায়কের। যদিও দেশে থাকলে স্ত্রীর জন্মদিন বেশ আয়োজন করেই পালন করেন নায়ক ওমর সানী। এছাড়া মৌসুমীর ভক্তদের পক্ষ থেকেও থাকে বিশেষ আয়োজন।

যেভাবে চলচ্চিত্রে এসেছিলেন মৌসুমী

ছোটবেলা থেকেই অভিনেত্রী এবং গায়িকা হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন মৌসুমী। এরপর তিনি ‘আনন্দ বিচিত্রা ফটো বিউটি কনটেস্ট’ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন। যার উপর ভিত্তি করে ১৯৯০ সালে টেলিভিশনের বাণিজ্যিকধারার বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সুযোগ পান।

১৯৯৩ সালে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে প্রবেশ করেন মিষ্টি চেহারার নায়িকা মৌসুমী। ওই ছবিতে তার নায়ক ছিলেন প্রয়াত সুপারস্টার সালমান শাহ। ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছিল তাদের দুজনেরই অভিষেক ছবি। প্রথম ছবিতেই পরিচালক-প্রযোজক ও দর্শকের নজর কাড়েন মৌসুমী, সঙ্গে সালমান শাহও।

এরপর শুধু ছুটেই চলেছেন। কখনোই আর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। অভিনয় জীবনে দুর্দিনও খুব একটা আসেনি। ক্যারিয়ারে মৌসুমী অভিনয় করেছেন ৮০টিরও বেশি ছবিতে। যার অধিকাংশই ব্যবসাসফল। এই নায়িকার সঙ্গে মান্না ও ইলিয়াস কাঞ্চনের জুটি ছিল সুপারহিট। এছাড়া স্বামী ওমর সানীর সঙ্গেও বেশ কয়েকটি ভালো ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি।

মৌসুমী অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’, ‘দোলা’, ‘মৌসুমী’, ‘অন্তরে অন্তরে’, ‘বিদ্রোহী বধূ’, ‘আত্মত্যাগ’, ‘বিশ্ব প্রেমিক’, ‘গরীবের রানী’, ‘লুটতরাজ’, ‘লাট সাহেবের মেয়ে’, ‘আম্মাজান’, ‘কষ্ট’, ‘খায়রুন সুন্দরী’, ‘মেঘলা আকাশ, ‘দেবদাস’ এবং ‘তারকাঁটা’ উল্লেখযোগ্য।

২৮ বছরের ক্যারিয়ারে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন মৌসুমী। সেই তিনটি সিনেমা হলো, মেঘলা আকাশ (২০০১), দেবদাস (২০১৩), তারকাঁটা (২০১৪)। মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার জিতেছেন তিনবার। এছাড়া ছয়বার পেয়েছেন বাচসাস পুরস্কার। অভিনয়ের পাশাপাশি কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় জনমত ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইউনিসেফের হয়ে কাজ করেন মৌসুমী।

সূত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam