বৃহস্পতিবার-৯ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ-২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,-সকাল ১০:৩৮

Reg No-36 (তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত)

শিরোনামঃ আলু দিয়ে বানান সুস্বাদু জিলাপি মৌলভীবাজার মুক্ত দিবস পালিত জলঢাকায় মৌলিক স্বাক্ষরতা প্রকল্প (৬৪ জেলা) শিক্ষা কার্যক্রম উদ্বোধন ও উপকরণ  বিতরন সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে মুরাদকে অব্যাহতি কানাডার উদ্দেশ্যে টিকিট কেটেছেন মুরাদ শুভ জন্মদিন সায়মা ওয়াজেদ পুতুল বেগম রোকেয়া ছিলেন বাঙালি নারী শিক্ষা প্রসারের অগ্রদূত: প্রধানমন্ত্রী

১৫টি প্রতিষ্ঠান পাচ্ছে রাষ্ট্রপতি শিল্প উন্নয়ন পুরস্কার

প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৪ নভেম্বর, ২০২১ , ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ , বিভাগ :

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক:শিল্প মন্ত্রণালয় কর্তৃক দেশের বেসরকারি খাতে শিল্প স্থাপন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ৬ ক্যাটাগরিতে ১৯টি শিল্পপ্রতিষ্ঠানকে রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন পুরস্কার দিচ্ছে সরকার। মূলত ২০১৯ সালে শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকাণ্ডের ওপরে ভিত্তি করে এ পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে।

 

বৃহস্পতিবার (৪ ন‌ভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আনুষ্ঠা‌নিকভাবে তাদের পুরস্কার দেওয়া হবে। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপ‌তি মো. আবদুল হা‌মিদ অনুষ্ঠানে প্রধান অ‌তি‌থি হিসেবে ভার্চুয়া‌লি উপ‌স্থিত থাকবেন।

বুধবার (৩ ন‌ভেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন সংবাদমাধ্যমকে জানান, বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশের শিল্পায়ন অভিযাত্রী একসূত্রে গাঁথা। বঙ্গবন্ধু ১৯৫৬ থেকে ১৯৫৭ সাল পর্যন্ত তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তান সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। ওই সময় তিনি পূর্ব পাকিস্তানে শিল্পায়নের ধারা বেগবান করার লক্ষ্যে ‘পূর্ব পাকিস্তান ক্ষুদ্র শিল্প করপোরেশন (ইপ্সিক)’ প্রতিষ্ঠা করেন। স্বাধীনতার পর থেকে এটি বিসিক নামে সারা দেশে তৃণমূল পর্যায়ে শিল্পায়ন প্রক্রিয়া জোরদারে কাজ করে যাচ্ছে। বিসিকের প্রচেষ্টায় দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাপক হারে শিল্পকারখানা গড়ে ওঠেছে।

উল্লেখ্য, দেশে বর্তমানে প্রায় ১ লাখ ২৫ হাজার ক্ষুদ্র শিল্প এবং প্রায় সাড়ে ৮ লাখ কুটির শিল্প রয়েছে। ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প খাতে এ পর্যন্ত প্রায় ৩৮ লাখ কর্মসংস্থান হয়েছে। পাশাপাশি দেশে ইতোমধ্যে প্রায় ১০ লাখ এসএমই প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এসব এসএমই শিল্পপ্রতিষ্ঠান-উদ্যোক্তা জিডিপিতে শতকরা ২৩ শতাংশ এবং মোট শিল্প কর্মসংস্থানে শতকরা ৮০ শতাংশ অবদান রাখছে।

শিল্প প্রতিষ্ঠানের শ্রেণিবিন্যাস অনুযায়ী ছয় ক্যাটাগরির শিল্পের জন্য ৩টি করে মোট ১৮টি শিল্পপ্রতিষ্ঠানকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়। এ বছর দুটি ক্যাটাগরির ২টি পজিশনে যৌথভাবে দুটি করে প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হওয়ায় এবং ১টি ক্যাটাগরিতে মাত্র ২টি প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হওয়ায় মোট ১৯টি শিল্পপ্রতিষ্ঠানকে ‘রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন পুরস্কার-২০১৯’ দেওয়া হচ্ছে। এগুলো হচ্ছে- বৃহৎ শিল্প ক্যাটাগরিতে ৪টি, মাঝারি শিল্প ক্যাটাগরিতে ৪টি, ক্ষুদ্র শিল্প ক্যাটাগরিতে ৩টি, মাইক্রো শিল্প ক্যাটাগরিতে ৩টি, কুটির শিল্প ক্যাটাগরিতে ২টি এবং হাইটেক শিল্প ক্যাটাগরিতে ৩টি।

এ বছর বৃহৎশিল্প, মাঝারি শিল্প, ক্ষুদ্র শিল্প, মাইক্রো শিল্প, কুটির শিল্প এবং হাইটেক শিল্প ক্যাটাগোরিতে পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে।

বৃহৎ শিল্প ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার যৌথভাবে পাচ্ছে বিআরবি কেবল ইন্ডাস্ট্রিজ এবং বহুজা‌তিক প্রতিষ্ঠান ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি লিমিটেড, একই ক্যাটাগরিতে দ্বিতীয় পুরস্কার পাচ্ছে মীর সিরামিক লিমিটেড এবং তৃতীয় জাবের অ্যান্ড জোবায়ের ফেব্রিক্স লিমিটেড।

মাঝারি শিল্পে প্রথম পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছে বেঙ্গল পলিমার ওয়্যারস লিমিটেড, দ্বিতীয় নোমান টেরি টাওয়েল মিলস এবং যৌথভাবে তৃতীয় পুরস্কার পাবে আকো-টেক্স লিমিটেড এবং ক্রিমসন রোসেলা সি ফুড।

ক্ষুদ্র শিল্প ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়েছে প্রমি অ্যাগ্রো ফুডস, দ্বিতীয় হিসাবে মনোনীত করা হয়েছে মাধবদী ডাইং ফিনিশিং মিলস এবং এপিএস হোল্ডিংস পাচ্ছে তৃতীয় পুরস্কার।

মাইক্রো শিল্পে প্রথম পুরস্কারে নির্বাচিত হয়েছে মসকো ডেইরি এন্টারপ্রাইজ, দ্বিতীয় খান বেকেলাইট প্রোডাক্টস এবং তৃতীয় র‌্যাভেন অ্যাগ্রো কেমিক্যালস লিমিটেড।

কুটির শিল্প ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পাবে দুটি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে প্রথম- কোর-দি জুট ওয়ার্কস এবং দ্বিতীয় সামসুন্নাহার টেক্সটাইল মিলস।

 

সর্বশেষ হাইটেক শিল্পে পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, ইনফরমেশন টেকনোলজি কনসালটেন্টস লিমিটেড এবং সামিট কমিউনিকেশনস লিমিটেড।


অর্থনীতি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ


_