তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০১ অপরাহ্ন

বঙ্গবন্ধুর আদর্শে দেশকে এগিয়ে নিতে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২, ৭.৪৯ এএম
  • ৭২ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ  বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে নতুন প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ থেকে উন্নত দেশের দিকে ধাবিত হবে। এ জন্য নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে হবে।   বঙ্গবন্ধু সোনার মানুষ চেয়েছিলেন। সেই সোনার মানুষ তৈরি হচ্ছে।’

বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটের অডিটোরিয়ামে মুজিববর্ষে প্রকাশিত বইগুলোর মোড়ক উন্মোচন, ‘বঙ্গবন্ধু স্কলার’ বৃত্তি প্রদান এবং ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কুইজ’ প্রতিযোগিতায় চূড়ান্ত বিজয়ীদের পুরস্কৃত বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী গণভবন প্রান্ত থেকে ভার্চুয়ালি এতে সংযুক্ত ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।শেখ হাসিনা বলেন, ‘মানুষ ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছিল বলেই আজ আমরা সরকার গঠন করতে পেরেছি। জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠান উদযাপন করতে পেরেছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২০০৯ সালে সরকার গঠন করে আমরা বাংলাদেশের একটা বিরাট পরিবর্তন আনতে পেরেছি। আমরা মানুষের খাদ্য, পুষ্টির নিরাপত্তা দিতে পেরেছি। শিক্ষা, স্বাস্থ্য খাত এগিয়ে নিয়েছি। বিশেষ করে প্রযুক্তি এগিয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা বিশ্বে এগিয়ে যাচ্ছে। নানান সুবিধা পাচ্ছে।’

সরকার প্রধান বলেন, ‘মানুষ ইতিহাস থেকে নিজেকে জানতে পারে। নিজেদের মধ্যে দেশাত্ববোধ তৈরি হয়। জাতির পিতাকে জানার মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম জানতে পারবে, দেশের জন্য তিনি কীভাবে নিবেদিত ছিলেন।’বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন,‘জাতির পিতা মানুষের জন্য জীবন দিয়ে গেছেন। এই আত্মত্যাগ বৃথা যেতে পারে না। শিক্ষা, বিজ্ঞান সবদিক দিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।’তিনি বলেন, ‘পৃথিবীতে আর কোনও নেতা আছে কিনা জানা নেই, যার নামে এত গান, এত কবিতা রচিত হয়েছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষাকে সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়েছেন। শিক্ষার সঙ্গে বিজ্ঞান-গবেষণাকেও গুরুত্ব দিয়েছেন জাতির পিতা। আমরা শিক্ষায় বৃত্তি দিয়ে থাকি। জাতির পিতার নামে একটি ট্রাস্ট করি। ৩২ নম্বর বাড়ির টাকা দিয়ে এই ট্রাস্ট ফন্ড করি। আমাদের মূল লক্ষ্য ছিল শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেওয়া।’তিনি বলেন, ‘উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণায় গুরুত্ব দেওয়া আমাদের লক্ষ্য ছিল। এ জন্য শুধু সরকারিভাবেই নয়, আলাদা একটি ফান্ডও করি। যার মাধ্যমে আমরা শিক্ষার্থীদের সাহায্য করি।’

এ সময় পুরস্কার পাওয়াদের ও আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি কর্তৃক প্রকাশিত গ্রন্থসমূহের প্রকাশনা উৎসব, বঙ্গবন্ধু স্কলার বৃত্তি প্রদান এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কুইজের চূড়ান্ত পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান:

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam