তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:৩০ পূর্বাহ্ন

সৌম্য-মুশফিকে ভর করে বড় সংগ্রহ খুলনার

  • প্রকাশ সোমবার, ৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২২, ২.১৭ পিএম
  • ৬৯ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) সিলেট সানরাইজার্সের বিপক্ষে সৌম্য-মুশফিকের ব্যাটে ভর করে বড় সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে খুলনা টাইগার্স। সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে তিন উইকেটে ১৮২ রান করে খুলনা।

সিলেটে এদিন হয়ে গেলো এক নাটক। ম্যাচের আগে হুট করে সিলেটের হয়ে টস করতে নামলেন দলের বিদেশি রিক্রুট রবি বোপারা। কিন্তু সৈকত গেলো কোথায়? তবে কি অধিনায়ক বদল করে ফেললো হারের বৃত্তবন্দী সিলেট?

জানা গেলো ভাবনাটা সত্যিই। অধিনায়ক বদলেছে সিলেট সানরাইজার্স। আগের ছয় ম্যাচে অধিনায়কত্ব করা মোসাদ্দেক সৈকতের জায়গায় নতুন অধিনায়ক বোপারা। তার টস ভাগ্যটা ভালোই বলতে হয়। টসে জিতে সিলেট খুলনাকে পাঠালো ব্যাট করতে।

ব্যাটিংয়ে শুরুটা ভালো হয়নি খুলনার। ম্যাচের দ্বিতীয় বলেই রানআউট হয়ে যান আগের ম্যাচে ঝড় তোলা ফ্লেচার। সৌম্য সরকারের ডাকে রান নিতে গেলেও হুট করে দৌড় থামিয়ে দেন সৌম্য। তাতে ফিরতে গিয়ে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন ফ্লেচার।

সোহাগ গাজীর পরের বলেই আবার ধাক্কা খায় খুলনার ইনিংস। এবার সাজঘরের পথ ধরেন মেহেদী হাসান। সোহাগের বলে অলোক কাপালীর হাতে ধরা পড়েন খুলনার এই ব্যাটার।

এক রানে দুই উইকেট হারিয়ে কাঁপতে থাকা খুলনাকে এরপর পথে আনেন সৌম্য সরকার ও ইয়াসির আলি। দুজন মিলে ৫.৪ ওভারে যোগ করেন ৪৫ রান। খুলনার তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটান তাসকিনের রিপ্লেসম্যান্ট হিসেবে দলে আসা একেএস স্বাধীন। নিজের ডেব্যু ম্যাচেই উইকেট পেলেন এই পেসার। ইয়াসিরের উইকেট নিয়ে রাঙালেন অভিষেক।

খুলনা টাইগার্সের ইনিংসে এরপর পুরোটাই সৌম্য আর অধিনায়ক মুশফিকের বীরত্বের গল্প। মাঝে ইনিংসের ৮.৪ বলের সময় ক্যামেরায় কিছু অসংগতি ধরা পড়ে। খেলা থামিয়ে আম্পায়ার বল চেক করে পরিবর্তন করে দিলেন বল। নকল বল করার চেষ্টা করতে গিয়ে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ উঠল সিলেটের নতুন অধিনায়ক রবি বোপারার নামে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে জরিমানা হলো ৫ রান!

সৌম্য – মুশফিকের জুটিতে এর পর বয়ে গেলো রানবন্যা। দুজন মিলে সিলেটের বোলারদের ওপর চালালেন স্টিম রোলার। দুজনই পেলেন অর্ধশতকের দেখা। সৌম্য সরকার চারটি করে বাউন্ডারি ও ওভার বাউন্ডারিতে করেন ৮২ রান। মুশফিক করেন ৩৮ বলে ৬২ রান। তার ইনিংসে ছিল ৬টি বাউন্ডারি ও দুইটি ওভার বাউন্ডারি। সিলেটের পক্ষে সোহাগ গাজী ও একেএস স্বাধিন একটি করে উইকেট লাভ করেন।

সূত্রঃ এবিএন

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam