তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০২:৩০ পূর্বাহ্ন

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিল-২০২২ সংসদে পাস হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে পিরোজপুরে আওয়ামীলীগের আনন্দ মিছিল’

  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ, ২০২২, ১.৫৫ পিএম
  • ৫১ বার ভিউ হয়েছে

পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিল-২০২২ সংসদে পাস হওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা ও পথসভা করেছে পিরোজপুর পৌর আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। বৃহস্পতিবার বিকেলে শহরের সিও অফিস মোড় বঙ্গবন্ধু চত্তর পৌর আওয়ামীলীগের আয়োজনে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে টাউনকাব সড়কে বিলাস চত্তরে পথসভায় মিলিত হয়। আনন্দ শোভাযাত্রায় শেষে পথসভায় বকাতব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. এম এ হাকিম হাওলাদার, জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক খান মো: আলাউদ্দিন, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি কাউন্সিলর সাদউল্লাহ লিটন, সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম মিরন, সদর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি তোফজ্জল হোসেন মল্লিক স্বপন, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সিকদার, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তারুজ্জামান মানিক, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইরতিজা হাসান রাজু। এসময় বক্তারা বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার উন্নয়নের সরকার আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশে উন্নয়ন হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একক প্রচেষ্টায় আজ পিরোজপুরে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিল-২০২২ সংসদে পাস হয়েছে। পিরোজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সঅভাপতি একেএম এ আউয়াল পৌর মেয়র হাবিবুর রহমান মালেক এর নেতৃত্বে সুসংগঠিত। ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিল-২০২২ সংসদে পাস হওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানানো হয়। উল্লেখ্য, শিামন্ত্রী দীপু মনি মঙ্গলবার (২৯মার্চ) বিলটি সংসদে পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। এর আগে বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠানো এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি করেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। বিলে বলা হয়েছে, পিরোজপুর সদরে এই বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে। উচ্চ শিা ও গবেষণার জন্য এক বা একাধিক ইনস্টিটিউট স্থাপন করা যাবে। অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই নতুন এ আইন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি চার বছর মেয়াদের জন্য দুজন উপ-উপাচার্য নিয়োগ করবেন। যাদের একজন অ্যাকাডেমিক, আরেকজন প্রশাসনিক কার্যক্রম দেখবেন। গত ১৮ নভেম্বর বিলটি সংসদে ওঠার পর বিলটি পরীা করে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য শিা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়। বর্তমানে দেশে ১৫৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিা কার্যক্রম চলছে, এর মধ্যে ৪৬টি সরকারি এবং ১০৭টি বেসরকারি।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam