তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন

সাবেক রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দীনের দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত

  • প্রকাশ রবিবার, ২০ মার্চ, ২০২২, ৫.৩২ এএম
  • ৩৯ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ  সাবেক রাষ্ট্রপতি এবং সাবেক প্রধান বিচারপতি সাহাবুদ্দিন আহমদের (৯২) দ্বিতীয় নামাজে জানাজা জাতীয় ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে।রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় ইমামতি করেন সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের ইমাম আবু সালেহ মো. সলিমউল্লাহ।বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত জানাজায় রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে মরহুমের কফিনে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো হয়। এছাড়া রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে মরহুমের কফিনে বিশেষ সম্মানও জানানো হয় ।জানাজায় প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীসহ সাবেক প্রধান বিচারপতিরা, সুপ্রিম কোর্ট এবং হাইকোর্টের বিচারপতিরা,মরহুমের পরিবারের সদস্য, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতারাসহ সাধারণ জনগণ উপস্থিত ছিলেন।

জানাজায় প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমেদ বাংলাদেশের উজ্জ্বল নক্ষত্র। বিচার অঙ্গনে এমন মানুষ হিসেবে আমরা যাদের পেয়েছি, তাদের মধ্যে তিনি অনন্য। যারা বিচার অঙ্গনে চলাফেরা করেন, তারা জানেন। এখন থেকে ৫০/১০০ বছর পরেও আমারা তার কাজের সুফল পাবো।সাহাবুদ্দীন আহমেদের ছোট ছেলে সোহেল আহমেদ বলেন, বাবা তার কর্ম জীবনের অধিকাংশ সময়ই এই বিল্ডিংয়ে কাটিয়েছেন। ব্যক্তি জীবন এবং কর্ম জীবন, উভয় মিলে তিনি মনে প্রাণেই একজন বিচারক ছিলেন। আপনারা সবার বাবার জন্য দোয়া করবেন।

জানাজা শেষে তার মরদেহ বনানী কবরস্থানে দাফনের উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়।সাহাবুদ্দিন আহমদের প্রথম জানাজা শনিবার বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার পাইকুড়া ইউনিয়নের পেমই গ্রামের নিজ বাড়ির আঙিনায় অনুষ্ঠিত হয়। ওইদিন বিকেল সোয়া ৩টার দিকে তার মরদেহবাহী হেলিকপ্টার কেন্দুয়া পৌর শহরের চকপাড়া এলাকার হেলিপ্যাডে অবতরণ করে। পরে সেখান থেকে মরদেহ পেমই গ্রামে আনা হয়। পরে জানাজা শেষে সাহাবুদ্দিন আহমদের মরদেহ নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন স্বজনরা।

শনিবার (১৯ মার্চ) সকাল ১০টা ২৫ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) মারা যান সাহাবুদ্দিন আহমদ। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর।ফেব্রুয়ারি মাসের তৃতীয় সপ্তাহে সাহাবুদ্দিন আহমদকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। গত কয়েক বছর ধরে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন।

দীর্ঘদিন বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগে ২০১৮ সালে ৮০ বছর বয়সে মারা যান সাহাবুদ্দিন আহমদের স্ত্রী আনোয়ারা আহমদ।তাদের পাঁচ সন্তানের মধ্যে সবার বড় ড. সিতারা পারভীন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক ছিলেন। ২০০৫ সালের ২৩ জুন যুক্তরাষ্ট্রে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান তিনি।

 

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam