- Muktinews24 - https://muktinews24.com -

সোনালী ব্যাংক জনগণের আস্থা ও বিশ্বাসের ঠিকানা: অর্থমন্ত্রী

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ দেশের রাষ্ট্রায়ত্ব অন্যতম বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান সোনালী ব্যাংককে জনগণের আস্থা ও বিশ্বাসের ভরসাস্থল বলে উল্লেখ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ ) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সোনালী ব্যাংকের ৫০ বছর ‘সুবর্ণ জয়ন্তী’ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘ব্যাংকিং ব্যবস্থা ছাড়া একটি দেশ পরিচালনা করা যায় না। যখন দেশে কোন বেসরকারি ব্যাংক ছিলো না, তখন থেকে সোনালী ব্যাংক লিড করে আসছে। এখনও এটি দেশের লিডিং ব্যাংক হিসেবে আছে। সোনালী ব্যাংক জনগণের গভীর আস্থা ও বিশ্বাসের ঠিকানা। আমার আস্থা ও বিশ্বাসের ঠিকানা।’

স্বাধীনতার পরবর্তী দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সোনালী ব্যাংকের অনেক অবদান রয়েছে, এমনটা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘একসময় উন্নয়নের কেস স্টাডি হিসেবে বাংলাদেশকে ধরা হতো। বলা হতো তলাবিহীন ঝুঁড়ি। অনেক নেগেটিভ আলোচনা হয়েছে। এখন তারাই বলছে বাংলাদেশ থেকে শিক্ষা নিয়ে অন্যান্য দেশগুলোতে বাস্তাবায়ন করতে। এটাই আমাদের অর্জন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির পিতার স্বপ্নের পথেই দেশ এগিয়ে চলছে, উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাতির পিতার স্বপ্ন ছিলো এ দেশের মানুষের জন্য একটি আবাসভূমি হবে, তাদের অর্থনৈতিক উন্নয়ন হবে। তিনি নেই, কিন্তু তার সেই কাজকে এগিয়ে নিচ্ছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আমাদের স্বপ্ন দেখান, স্বপ্ন দেখতে বলেন। এ সময় ২০৩০ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়তে ব্যাংকিং খাতের সহযোগীতা প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন আ হ ম মুস্তাফা কামাল।

ব্যাংকের সুদহার কমিয়ে প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করা হয়েছে, এমনটা জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘যখন আমরা চার্জ ১৮-২০ শতাংশ কমিয়েছি তখন অনেকে ভয়ে ছিলেন হয়তো ক্ষতির মুখে পড়বে ব্যাংকগুলো। কিন্তু দেখা গেছে সেটা ভুল প্রমাণিত হয়েছে। যদি সুদ ১৮ থেকে ২০ শতাংশ হয় তখন এনপিএল (নন-পারফর্মিং লোন) বেড়ে যায়। এতে সক্ষম প্রতিষ্ঠানও দূর্বল হয়ে যায়। তাই আমরা চার্জ কমিয়েছি।’

অনুষ্ঠানে কেক কেটে ৫০ বছর সুবর্ন জয়ন্তি উদযাপন করেন অর্থমন্ত্রী। এছাড়া সোনালী ব্যাংকের অনলাইন ব্যাংকিং ‘সোনালী প্রয়াস’ এরও উদ্বোধন করেন। সোনালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, দেশের প্রথম অর্থ সচিব মতিউল ইসলাম, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান প্রমুখ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্যাংকের সিইও এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আতাউর রহমান প্রধান। এসময় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত ব্যাংকটির প্রায় ১৬’শ কর্মকর্তা ও বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।