তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ :
বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিনের প্রতিকৃতিতে দুর্গাপুর পৌরসভার শ্রদ্ধাঞ্জলি নতুন দুই সিনেমায় ফজলুর রহমান বাবু আমাজনের সেরা এমপ্লয়ি কমলগঞ্জের মিজান বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনাসভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ দুর্গাপুরে বঙ্গমাতার জন্মদিনে ভাইস চেয়ারম্যান সাদ্দাম আকঞ্জি’র দোয়া ও মিলাদ মাহফিল ঢাকার দুই মেয়র পূর্ণমন্ত্রীর মর্যাদা পাচ্ছেন মুরগির খামারে বিজি মারতে বানানো ফাঁদে মারা গেলেন নিজেই দুর্গাপুরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিন পালিত সান্তাহার স্টেশনে চোর চক্রের এক সদস্য গ্রেপ্তার চিলমারীতে সোনালী ব্যাংকের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর

ঈদের কেনাকাটায় বিদেশি পণ্যের খোঁজে ক্রেতারা

  • প্রকাশ সোমবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২২, ৫.৩৬ এএম
  • ৫৫ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ ঈদ আনন্দ বাড়িয়ে দেয় নতুন জামা-জুতা, শাড়ি আর বাহারি সব প্রসাধনী। অনেকে আবার এসবের জন্য নির্ভর করেন আমদানি করা বিদেশি পণ্যের ওপর। রাজধানীর পলওয়েল সুপারমার্কেটের দোকানিদের কেউ কেউ বিদেশ থেকে আমদানি করা পণ্যসামগ্রী বিক্রি করেন। ফলে মার্কেটটিতে দেশি পণ্যের পাশাপাশি চীন, ভারত, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনামসহ অন্য দেশ থেকে পণ্য এনে ঈদ বাজারের পসরা সাজিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

রোজার শেষ মুহূর্তের ভিড় এড়াতে অনেক ক্রেতা এরই মধ্যে শুরু করে দিয়েছেন ঈদ কেনাকাটা। এদিকে মিরপুর বেনারসি পল্লীও জমে উঠেছে ঈদ কেনাকাটায়। সেখানকার দোকানিরা আশা করছেন, করোনা সংক্রমণের কারণে গত দুই বছর যে ক্ষতি তাঁদের হয়েছে, এবার কিছুটা হলেও পুষিয়ে নেওয়া যাবে।

গতকাল রবিবার দুপুরে পলওয়েল সুপারমার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, মার্কেটটির নিচতলা ও দোতলার দোকানগুলোয় চলছে খুচরা বেচাকেনা। তৃতীয় তলা থেকে পঞ্চম তলার দোকানগুলো পাইকারি পণ্য বিক্রি করলেও ঈদ উপলক্ষে খুচরা বিক্রিও করছে। মার্কেটটিতে নামিদামি বিদেশি ব্র্যান্ডের পোশাকের পসরা সাজিয়েছেন দোকানিরা। তাঁরা বলছেন, দিন দিন ক্রেতার উপস্থিতি বাড়লেও এখনো আশানুরূপ খুচরা বিক্রি শুরু হয়নি। আশা করছি, রোজার শেষ সপ্তাহে সেটি হবে। তবে রোজার দুই সপ্তাহ আগে থেকেই শুরু হয়েছে পাইকারি বিক্রি।

মার্কেটটির দ্বিতীয় তলায় ইমতিয়াজ এন্টারপ্রাইজের মালিক ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘দুই বছর কোনোমতে ব্যবসা ধরে রেখেছি। এবার আশা করছি, ঘুরে দাঁড়াতে পারব। আমার দোকানে ২২০০ টাকা থেকে ৫০০০ টাকা দামের জিন্স প্যান্ট রয়েছে। শার্ট রয়েছে ১৩০০ টাকা থেকে ৬০০০ টাকা দামের। আসলে দামের চেয়ে পণ্যের মান ভালো পান বলে ক্রেতারা আমাদের এই মার্কেটে ভিড় জমান। আমরাও ক্রেতাদের চাহিদামতো পণ্য আমদানি করি। ’

ওই দোকানে ছেলের জন্য টি-শার্ট কিনতে আসা নুসরাত জাহান নামের এক গৃহিণী বলেন, ‘ছেলের জন্য ঈদের কেনাকাটা করব। এই মার্কেটে ভালোভাবে কেনাকাটা করার সুযোগ রয়েছে। প্রতিবছর ঈদে এখানেই আসি। এবার ছেলের জন্য ভালো বিদেশি টি-শার্ট খুঁজছি। ’

মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, মূলত শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণীদের পোশাকই বেশি পাওয়া যাচ্ছে এখানে। ছোট-বড়দের থ্রিপিস, শর্ট ও লং লেহেঙ্গা, বোম্বের পাঞ্জাবি, পাকিস্তানি থ্রিপিস, ছেলেদের শার্ট, জুতা, কেডসও রয়েছে। এ ছাড়া মেয়েদের জুতা-স্যান্ডেলও আছে।

পলওয়েলের ফিডা ফ্যাশনে পাওয়া যাচ্ছে তরুণদের হাল ফ্যাশনের পোশাক। সেখানে ইন্ডিয়ান জিন্স পাওয়া যাচ্ছে ২০০০ থেকে ৩০০০ হাজার টাকার মধ্যে। মার্কেটের নিপ্রতা এন্টারপ্রাইজের দোকানি জানান, তাঁদের দোকানে থাইল্যান্ড, ইতালির মূল ব্র্যান্ডের শার্ট ও টি-শার্টের দাম ২০০০-২৫০০ থেকে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

পলওয়েল দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ বি এম সালাউদ্দিন বাশার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গত দুই বছর ক্ষতি হয়েছে। এবার আশা করছি ভালো কিছু হবে। মার্কেটে ক্রেতার উপস্থিতি ক্রমে বাড়ছে। সামনে আরো বাড়বে। এখন স্কুল ও অফিস খোলা, ইফতার, তারাবির নামাজ সব মিলিয়ে অনেক ক্রেতা মার্কেটে আসতে পারছেন না। ’

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam