তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:২৯ অপরাহ্ন

বদলগাছীর ছোট যমুনা এখন মরা খালে পরিণত

  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২, ৭.০৫ এএম
  • ৫৫ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ  নওগাঁর বদলগাছীতে ছোট যমুনা নদী যৌবন হারিয়ে যেন মরা খালে পরিণত হয়েছে কৃষকেরা ফলাচ্ছে সব ধরনের ফসল। নদীর বুক জুড়ে বোরো ধান চাষ যেন দিন দিন বেড়েই চলছে। ঐতিহ্যবাহী বদলগাছী উপজেলার কোল ঘেঁষে ছোট যমুনা নদী প্রবাহিত হয়েছে। নদীর কথা ভাবতেই মনে পড়ে শৈশবে ফেলে আসা হারানো দিনের পূরানো কবিতার কথা। কবির কথার কাব্যের সাথে বর্তমান নদীর চিত্র একে বারে ভিন্ন। মূলত বর্ষার মৌসুমে ১/২ মাস নদীতে জোয়ার থাকে, বিগত কয়েক বছর থেকে ছোট যমুনা নদী তার আপন সত্ত্বা হারিয়ে আগাম শুকিয়ে যাওয়ায় নদীর বুকে সাফল্য জনকভাবে চলতি মৌসুমে বোরো ধান, চাষ করছে স্থানীয় ভূমিহীন কৃষকরা। অথচ এই নদীই ছিল এক সময়এলাকার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার অন্যতম নদী পথ। ভরা যৌবন জোয়ারে পরিপূর্ণ ছিল নদীতে এক সময় চলত পাল তোলা নৌকা,দূর থেকে ভেসে আসত মাঝি মাল্লার গান। নদীর হাঁটু জলে গরুর গাড়ি পারা পার হত। গ্রামের ছোট ছেলে মেয়েদের নদী জলে সাঁতার কাটা দৃশ্য,এখন নদীর জোয়ারের সেই কল কল ধ্বনী ঝর ঝর করে নেমে আসা ঝরনার আওয়াজ এখন শুধু যেন ফসলের মাঠ।নদ নদী দেশের প্রাণ এখন সেই নদীই যেন নিঃস্বপ্রাণ, মরা খাল। জলবায়ুর পরিবর্তন আর প্রাকৃতিক বিরুপ প্রভাবে নদীকে নিয়ে যত ছন্দ কবিতা আর গান সব কিছুতেই যেন থমকে দারিয়েছে। তখন সুখ দুঃখ আবেগ অনুভূতি যেন হৃদয়কে নানানভাবে দোলা দেয়। আবেগময় হৃদয়ে স্বপ্ন কথা শুকনো নদীর সঙ্গে তুলনা করেন কবি।কবি সাহিত্য কিংবা কবিতার ছন্দ কথা নিয়ে গিটারের ঝংকারে শিল্পীর গানের সুরে সুরে মানুষ অবুঝ মনকে ব্যাকুল করে তুলতো।

বদলগাছীর উপর দিয়ে প্রবাহিত সেই খর¯্রােতা ছোট যমুনা নদী শুধু বর্ষাকালে কয়েক দিনের জন্য ফুটে ওঠে নদীর চিত্র। এখন নদীর তলায় চাষাবাদ হচ্ছে ধান, শরিষা, আলু, সহ অনেক ফসল। ছোট যমুনার বর্তমান গতি পথ কূল কিনারা দেখে উপজেলার সচেতন মহলের ধারনা আগামী ১০ বছর পর ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে কবির কাব্য কথা কিংবা শিল্পীর গানের কথার মতই  দাড়িয়েছে।বদলগাছীর কাদিবাড়ী ঘাটে প্রবীন সাধু মাঝি বলেন,নদীর গতি পথ নদীর প্রাণ সেই গতি পথ যদি হয় রুদ্ধ আর ভরাট তাহলে নদীতে থাকবে না আর জল,চলবে না নৌকা। তাই আমাদের এই ছোট যমুনা কে বাঁচাতে হলে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। সেই সাথে সরকারী ভাবে যদি নদী খননের মধ্য দিয়ে আবারো ফিরিয়ে আনতে পারে তাহলে কিছুটা হলেও ফিরয়ে আসবে নদীর সেই ভরা যৌবন।

এ ব্যাপারে বদলগাছী উপজেলা চেয়ারম্যান সামসুল আলম খাঁন নদী খোনন না করলে অস্তিত থাকবেনা।

নওগাঁ জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান বলেন বড় প্রকল্পের মাধ্যমে যদি নদী খোনন করা হয় তাহলে সমস্য সমাধান হবে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam