তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৯:১০ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ :
গরিব মানুষের দুঃসময় কেটে যাবে : অর্থমন্ত্রী ইভ্যালি নতুন করে চালুর আবেদন পাপারাজ্জিদের সঙ্গে তর্কে জড়ালেন তাপসী সংকট সাময়িক, মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যথাযোগ্য সম্মান ও সম্মানী শেখ হাসিনার সরকার-ই দিয়েছে  –পরিবেশ মন্ত্রী ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা প্রার্থী প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ উলিপুরে ঔষধ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা, আসামী গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন মৌলভীবাজারে ভোক্তার অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ প্রতিষ্টনকে জরিমানা করোনায় আরও ১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৯৮ ৩১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুকছে জিম্বাবুয়ে

যেভাবে নেবেন রিবন্ডিং করা চুলের যত্ন

  • প্রকাশ রবিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২২, ৭.৩৯ এএম
  • ৩৯ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ  ফ্যাশনের সাথে তাল মিলিয়ে চুলের রিবন্ডিং করা নারীদের সংখ্যা বেড়েছে অনেক বেশি। অনেকেই কোঁকড়া চুল পছন্দ করেন না তাই রিবন্ডিং করান। চুল রিবন্ডিং করালে অন্তত এক বছর চুল সোজা থাকে। স্ট্রেইট চুলের সুবিধা হলো, খুব সামান্যতেই দেখতে গোছানো লাগে। তবে চুল রিবন্ডিং করালেই কিন্তু কাজ শেষ নয়, রিবন্ডিং চুলের জন্য চাই বাড়তি যত্ন।সঠিক যত্নের অভাবে রিবন্ডিং করা চুলের আগা ভেঙে যায়, ফেটে যায়, চুল রুক্ষ হয়ে পড়েও যায়। সুন্দর চুল আরও বেশি সুন্দর রাখতে দরকার সঠিক যত্নের। চলুন জেনে নিই কীভাবে রিবন্ডিং চুলের যত্ন নেয়া যায়।১. রিবন্ডিং করানোর পর তিন দিন পর্যন্ত চুল ভেজানো বা শ্যাম্পু করা যাবে না। রিবন্ডিং চুলের জন্য অ্যারোমা ট্রিটমেন্ট সবচেয়ে ভালো। চুল রিবন্ডিং করানোর তিন দিন পর হেয়ার স্পা করাতে হবে অবশ্যই। এরপর থেকে প্রতি মাসে একবার এই স্পা ট্রিটমেন্ট করান। তাহলে চুল ভেঙে যাবে না এবং চুল থাকবে সিল্কি এবং সাইনি।

২. রিবন্ডিং করা চুলের যত্নে হট অয়েল ম্যাসাজ খুব গুরুত্বপূর্ণ। চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন শ্যাম্পু করার এক ঘণ্টা আগে চুলে অয়েল ম্যাসাজ করুন।৩.রিবন্ডিং চুলের জন্য হালকা শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। ক্যারোটিন জাতীয় শ্যাম্পুগুলো বেশ ভালো রিবন্ডিং চুলের জন্য। তবে ভালো মানের শ্যম্পু ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন।৪. গোসল করার পর ভেজা তোয়ালে অনেকক্ষণ পেঁচিয়ে রাখবেন না, এতে চুলের গোড়া দুর্বল হয়ে যায়।৫.ভেজা চুল একদমি আঁচড়ানো যাবে না। কারণ, ভেজা অবস্থায় চুল নরম থাকে, তাই চুল আঁচড়ালে চুল খুব সহজে চিরুনিতে উঠে আসে। চেষ্টা করবেন দিনে অন্তত তিনবার মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়াতে। এতে করে মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পায়।

৬. মাঝে মাঝে চুলের আগা ট্রিম করাবেন। এতে করে আগা ফাটা দূর হয় এবং আপনার চুলের সৌন্দর্য নষ্ট হবে না । ফলে দেখতেও ভালো লাগবে। এছাড়া রিবন্ডিং দীর্ঘস্থায়ী হয়।৭. চুলে প্রোটিন প্যাক, ডিপ কন্ডিশনিং কিংবা হেয়ার স্পা করতে পারেন। এতে করে চুল থাকে শাইনি এবং চুলে ভাজ পরে না।৮.ডিম, ক্যাস্টর অয়েল ,লেবুর রস ও মধু এক চামচ একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে স্কাল্পে লাগাতে পারেন। খুশকির সমস্যা থাকলে স্কাল্পে লেবু বা পেঁয়াজের রস ব্যবহার করতে পারেন। গরম পানি দিয়ে চুল ধোয়া থেকে বিরত থাকুন। গরম পানি আপনার চুলকে নষ্ট করে দেয়।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam