তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ১০:২৫ অপরাহ্ন

শেষ মুহুর্তে জমজমাট বিক্রি শ্রীমঙ্গলের ঈদ বাজারে

  • প্রকাশ শনিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২২, ৫.২৯ এএম
  • ৫২ বার ভিউ হয়েছে

এম.মুসলিম চৌধুরী,শ্রীমঙ্গল,(মৌলভীবাজার)প্রতিনিধি:
আর মাত্র ২/৩ দিন বাকি মুসলিম সম্প্রদায়ের সবছেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল-ফিতর। ঈদকে সামনে রেখে জমজমাট বিক্র বেড়েছে মার্কেটগুলোতে। শ্রীমঙ্গল শহরের বড় বিপণী বিতানের পাশাপাশি হকার্স মার্কেটেও প্রচন্ড ভীড় করছেন ক্রেতারা। সব মিলিয়ে শেষ মুহুর্ত জমে উঠেছে শ্রীমঙ্গলের ঈদ বাজার। ক্রেতাদের পদচারণায় মুখরিত বিপণি বিতানগুলো।  ঈদে নতুন জামা কাপড় কিনতে ফুটপাতসহ সর্বত্রই কেনাকাটার ধুম লক্ষ করা গেছে। নতুন কাপড়ের সাথে সাথে জুতার দোকানেও ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীর লক্ষনীয়। ঈদের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই জমে উঠেছে ঈদের বাজার। কাপড়-প্রশাধনী ও জুতার দোকান গুলো সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে জমজমাট বিক্রি। ঈদের দিন যতই এগিয়ে আসছে ঈদের বাজার ততই জমে উঠছে। নারী-শিশুসহ নানা ধরনের ক্রেতার ভিড়ে শহরের শাপলা সুপার মার্কেট, মিদাদ শপিং সেন্টার, নিউ মার্কেট, এমবি ডিপার্টমেন্ট, বিলাস শপিং মলসহ অন্যান্য শপিং সেন্টারগুলোতে ক্রেতাদের ভীড়ে মুখরিত হয়ে উঠছে।
গত দুইবছর করোনার প্রভাব থাকায় ব্যবসা বানিজ্য ঝিমিয়ে পড়েছিলো। করোনাকালীন সময়ে ক্ষতি পুষিয়ে উঠাতে পারবেন বলে ব্যবসায়ীরা প্রত্যাশা করছেন। ঈদ মার্কেট করতে আসা রহিমা শেখ জানান, এবার যেহেতু করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে, তাই স্বাচ্ছন্দে মার্কেটে এলাম। পরিবারের সবার জন্য কেনাকাটা করবো। সঙ্গে থাকা জান্নাত বলেন,  ঈদে পরিবারের জন্য কেনাকাটা করার মজাই আলাদা। সাইফুর রহমান সুপার মার্কেটের তরুণ ব্যবসায়ী শুভন চৌধুরী রাব্বি বলেন,  ‘গত কয়েকটি ঈদ ও পূজাপার্বণে লকডাউনের কারণে তেমন একটা বেচাকেনা হয়নি। এবার আশা করি ভালো কেনাবেচা হবে। এ বছর ঈদে জিন্সের প্যান্ট, বিভিন্ন ডিজাইনের পাঞ্জাবি, গেঞ্জি, শার্ট-প্যান্ট কিনছেন অনেকে। বেশি চলছে পূস্পারাজ, সারালা, গাড়ালা ও কাচা-বাদমসহ নানান ধরণের পোষাক রয়েরছ বাজারে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam