তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৮:২৬ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ :
গরিব মানুষের দুঃসময় কেটে যাবে : অর্থমন্ত্রী ইভ্যালি নতুন করে চালুর আবেদন পাপারাজ্জিদের সঙ্গে তর্কে জড়ালেন তাপসী সংকট সাময়িক, মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যথাযোগ্য সম্মান ও সম্মানী শেখ হাসিনার সরকার-ই দিয়েছে  –পরিবেশ মন্ত্রী ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা প্রার্থী প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ উলিপুরে ঔষধ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা, আসামী গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন মৌলভীবাজারে ভোক্তার অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ প্রতিষ্টনকে জরিমানা করোনায় আরও ১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৯৮ ৩১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুকছে জিম্বাবুয়ে

কুড়িগ্রামে শ্রমিক সংকট কাটাতে হার্ভেস্টারে শষ্য কর্তন

  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ১৯ মে, ২০২২, ১১.১১ এএম
  • ৩২ বার ভিউ হয়েছে

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামে কৃষিতে শ্রমিক সংকট কাটাতে কম্বাইন হার্ভেস্টারের মাধ্যমে শষ্য কর্তন মাঠ দিবস পালিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের বিসিক শিল্পনগরী এলাকায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমান উদ্দিন আহমেদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর ইউএনও মো. রাসেদুল হাসান, সদর কৃষি অফিসার মো. জাকির হোসেন প্রমুখ।
সদর উপজেলা কৃষি অফিসার মো. জাকির হোসেন জানান, সরকারি উদ্যোগে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় কৃষকদের একসাথে বীজ বপন, সার প্রয়োগ ও পরিচর্চা এবং এক সাথে কর্তনে সমালয় ভিত্তিক কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে। এতে কুড়িগ্রাম সদর ও নাগেশ^রী উপজেলায় ১৭১জন কৃষককে সম্পৃক্ত করা হয়। এসময় স্থানীয় কৃষকদের চাহিদা মোতাবেক ১০০ একর জমিতে হাইব্রীডজাত ন্যাশনাল এগ্রোর জিনকরাজ বোরো ধানের বীজ সরবরাহ করা হয়। বীজ বপনে শ্রমিকদের বদলে রাইস ট্রান্স প্লান্টার মেশিন ব্যবহার করা হয় এবং ধান কর্তনেও কম্বাইন হার্ভেস্টার মেশিনের সহযোগিতা নেয়া হয়। এতে খরচ সাশ্রয় হচ্ছে। যেখানে এক একর জমি কর্তনে শ্রমিকদের ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা খরচ দিতে হয়। সেখানে কম্বাইন হার্ভেস্টারের মাধ্যমে মাত্র ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা খরচ হয়। ফলে শ্রমিকের উচ্চ মূল্য ও শ্রমিক সংকট কাটাতে কৃষকদেরকে মেশিনের মাধ্যমে চারা রোপন ও কর্তনে এই কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে। যাতে অন্যান্য কৃষকরাও উদ্বুদ্ধ হয়।
এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপপরিচালক মো. আব্দুর রশীদ জানান, দুটি উপজেলায় কৃষি প্রণোদনার মাধ্যমে সমালয় ভিত্তিক বোরো চাষাবাদ কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে। এতে কৃষকরা একসাথে জমিতে চারা রোপন করবেন। একসাথে সার প্রয়োগ ও পরিচর্চা করবেন এবং একসাথে ধান কর্তন করবেন। এই সমালয় ভিত্তিকে কাজ করা হলে কৃষকদের খরচ সাশ্রয় হবে এবং উৎপাদনও বৃদ্ধি পাবে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam