তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ :
গরিব মানুষের দুঃসময় কেটে যাবে : অর্থমন্ত্রী ইভ্যালি নতুন করে চালুর আবেদন পাপারাজ্জিদের সঙ্গে তর্কে জড়ালেন তাপসী সংকট সাময়িক, মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যথাযোগ্য সম্মান ও সম্মানী শেখ হাসিনার সরকার-ই দিয়েছে  –পরিবেশ মন্ত্রী ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা প্রার্থী প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ উলিপুরে ঔষধ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা, আসামী গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন মৌলভীবাজারে ভোক্তার অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ প্রতিষ্টনকে জরিমানা করোনায় আরও ১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৯৮ ৩১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুকছে জিম্বাবুয়ে

মহামারী পরবর্তী বিশ্ব নিয়ে নোয়াখালীর সূর্যসন্তানের সফল ভবিষ্যৎবাণী

  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ১৭ মে, ২০২২, ৭.৩৯ এএম
  • ৪৩ বার ভিউ হয়েছে
নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর সম্ভ্রান্ত এক মুসলিম পরিবারে জম্ম গ্রহণ করেন দেশের তরুন গবেষক, লেখক ও নোয়াখালীর সূর্য সন্তান নূর আল আহাদ। শিক্ষাগত জীবনে চারটি প্রথম শ্রেণী এবং দুটি ফরেন মাস্টার্স ডিগ্রীর অধিকারী আহাদ পড়াশোনা করেছেন ভারত, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, জাপান সহ বেশ কয়েকটি দেশে। বর্তমানে তিনি জাপানে গবেষক হিসেবে কর্মরত আছেন। এছাড়াও তার আরো একটি পরিচয় হচ্ছে তিনি একজন তরুন লেখক। ডেটা সায়েন্স এবং মেশিন লার্নিং নিয়ে বাংলা ভাষায় লেখা সর্বপ্রথম বইটির লেখক তিনি। আহাদ নিয়মিতভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা জিনিস নিয়ে বিশ্লেষণধর্মী লেখা-লেখি করেন । তিনি নোয়াখালী জেলা প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও জনপ্রিয় প্রবীণ সাংবাদিক আবদুল কাদের এবং নোয়াখালী পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা আসনের প্রথম জনপ্রিয় মহিলা কমিশনার ফেরদৌস আরা বেগমের একমাত্র পুত্র সন্তান। নোয়াখালী জেলা মুজিব বাহিনীর অধিনায়ক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহমুদুর রহমান বেলায়েতের বোনের ছেলে তিনি। তরুণ এই গবেষক নোয়াখালী জিলা স্কুল এবং নোয়াখালী সরকারি কলেজের সাবেক কৃতি শিক্ষার্থী।
করোনা মহামারীর শুরু থেকেই যেখানে সবাই নানা রকম দ্বিধা-দ্বন্দ্বে ভুগছিলেন সেখানে তিনি করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রণ এবং করোনা পরবর্তী নানা রকম বিষয় নিয়ে নিয়মিত লেখালেখি করেন মহামারীর  শুরু থেকেই। মহামারী পরবর্তী বিশ্ব নিয়ে তিনি একটি বিশ্লেষণধর্মী লেখা তার ব্যক্তিগত ফেইসবুক একাউন্টে পোস্ট করেছিলেন ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে। মূলত এই লেখাটির পর পরই করোনা মহামারী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে পৃথিবীতে।
তার বিশ্লেষণধর্মী পোস্টে তিনি লিখেছিলেন যে করোনার প্রকোপ কমে আসার সাথে সাথে বিশ্বের দেশগুলোতে নানা রকম সমস্যা দেখা দিবে যার মধ্যে খাদ্যের সমস্যা, কর্মসংস্থানের সমস্যা, এবং ক্ষমতার পরিবর্তনের পট হবে প্রধান সমস্যা।
আশ্চর্যজনকভাবে তিনি যা যা বলেছেন তার পোস্টে তার সব কিছুই বর্তমানে বিশ্বের পরিস্থিতির সাথে অবিকলভাবে মিলে যাচ্ছে। তিনি খাদ্যের সমস্যার কথা বলেছেন যা পৃথিবীর অনেক দেশেই ইতিমধ্যে দেখা দিয়েছে। ক্ষমতা নিয়ে নানা রকম টানাপোড়ন বিশ্বের দেশগুলোতে আমরা ইতিমধ্যেই দেখতে পাচ্ছি।
বিশ্ব জুড়ে দ্রব্যমূল্যের দাম প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের মতে, ২০২২ সালের মার্চ মাসে দ্রব্যমূল্যের দাম বেড়ে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছিয়েছে। অন্যদিকে, জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (ফাও) এর মধ্যে বিগত তিন দশকের মধ্যে দ্রব্যমূল্যের দাম সবচাইতে বেশি হয়েছে চলতি বছরের মার্চ থেকে। গত এপ্রিল মাসে বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট  ডেভিড মালপাস বলেছেন যে, বিশ্ব খাদ্য সংকটে পড়তে যাচ্ছে। উল্লেখ্য,গত ৯ মে জার্মানির সরকার বিশ্বজুড়ে ভয়াবহ খাদ্য সংকট নিয়ে তাদের নাগরিকদের সতর্ক বার্তা দিয়েছে।
অন্যদিকে, করোনার প্রকোপ কিছুটা কমার পরপরই রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যকার উত্তেজনা বেড়ে তা যুদ্ধের আকার ধারণ করেছে। যদিও এই যুদ্ধের সাথে রাশিয়া এবং ইউক্রেন সরাসরি জড়িত কিন্তু এর আড়ালে বিশ্বের ক্ষমতার পটেরও পরিবর্তনের কিছুটা আভাস রয়েছে। ইউরোপের বেশ কিছু গবেষকদের মতে ১৯৪৫ সালের পর ইউরোপ ঘটে যাওয়া সবচাইতে বড় যুদ্ধ এটি। বিশ্বের বেশ কিছু দেশ রাশিয়ার বিরুদ্ধে নানা ধরণের স্যাংশন নেয়ার পর তার সরাসরি বিরূপ প্রভাব পড়েছে পুরো বিশ্বের অর্থনীতিতে।  অন্যদিকে, ক্ষমতার পটের পরিবর্তনে শ্রীলংকার অবস্থান আমাদের সবারই জানা।
এছাড়াও বিশ্ব জুড়ে বেকার সমস্যাও বেড়েছে ব্যাপক হারে। বিশেষ করে করোনার কারণে ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রগুলো সীমিত হয়ে গিয়েছে। এমন অবস্থায় বেকারত্বের হার পুরো বিশ্ব জুড়েই বেড়েছে। আমাদের দেশের ক্ষেত্রে অনেকের বেতন কমে গিয়েছে, চাকরি চলে গিয়েছে কিংবা বেতন অনিয়মিত হয়ে গিয়েছে করোনার প্রভাবে।
তরুণ অর্থনীতিবিদ আহাদ আজ থেকে দুই বছর আগে যা যা বলেছিলেন তার সব কিছুই বিশ্বে ঘটে যাচ্ছে। যা স্পষ্টভাবে আমাদের সামনে দৃশ্যমান। এই প্রসঙ্গে আমাদের নিজস্ব সংবাদদাতাকে গবেষক আহাদ বলেন, পৃথিবীতে প্রতি একশো বছর পর পর মহামারী দেখা দেয়ার একটা প্রবণতা আমরা দেখতে পাই। তবে মহামারী হিসেবে করোনা অনেকটাই ভিন্ন কারণ আজকের যুগে এমন ধরণের সমস্যায় আমরা পড়তে পারি তা কেউ চিন্তা করেন নি। মহামারী নিয়ে আমরা ক্ষুদ্র কিছু গবেষণা আমাকে করোনা মহামারী এবং তার পরবর্তী বিশ্ব নিয়ে ভবিষ্যৎবাণী করতে সাহায্য করেছে। বিশ্লেষণধর্মী লেখাগুলো আমি বরাবরই নিজের ফেইসবুক একাউন্টে পাবলিক পোস্ট হিসেবে পোস্ট করি। তবে অনেক নামি-দামি গবেষকের ভিড়ে আমাদের মতো প্রবাসী ছোটোখাটো গবেষকদের ভালো লেখাগুলোর মূল্যায়ন কম হয়ে থাকে বলে তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। তার বক্তব্যগুলো দুই বছর আগে আমরা জানতে পারলে আমাদের দেশের তথা দেশের অর্থনীতির অনেক উপকার হতো বলে জানান বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী এবং সাধারণ ব্যক্তি। এই সময়ে সঠিকভাবে নিয়ম মেনে আবেদনের পরও নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে গবেষক আহাদকে নিয়োগ না দেয়ার বিষয়েও অসন্তোষ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী এবং নোয়াখালীর গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
আজকে গবেষক আহাদের মতো বিশ্লেষণধর্মী ভবিষ্যৎবাণী যদি কোনো বিদেশী গবেষক করতো তাহলে আমরা সবাই তা খুব করে শেয়ার করে ভাইরাল করতাম। কিন্তু আমাদের সর্বদা উচিত আমাদের দেশীয় মেধাকে মূল্যায়ন করা। গবেষক আহাদই করোনা পরবর্তী বিশ্ব নিয়ে সঠিক ভবিষ্যৎবাণী করেছেন এটা আমরা নির্দ্বিধায় বলতে পারি। আমাদের উচিত গবেষক আহাদকে সঠিক মূল্যায়ন করা।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ আজ উন্নতির মহাসড়কে গিয়ে দাড়িয়েছে। আমাদের দেশের উন্নতিকে আরো ত্বরান্তিত করতে প্রয়োজন আহাদের মতো তরুণ গবেষকদের। সরকারের প্রতি অনেক শিক্ষার্থীদের আকুল আবেদন বাংলাদেশ সরকার তরুণ গবেষককে দেশের প্রয়োজনে জম্মভূমিতে ফিরিয়ে আনবে। গবেষক আহাদকে যথাযথ সম্মানজনক পদে নিযুক্ত করে দেশের নাম আরো উজ্জ্বল করার সুযোগ করে দিবে রাষ্ট্র সেই প্রত্যাশা করে নোয়াখালীর সাধারণ জনগণ এবং গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam