তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ :
বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিনের প্রতিকৃতিতে দুর্গাপুর পৌরসভার শ্রদ্ধাঞ্জলি নতুন দুই সিনেমায় ফজলুর রহমান বাবু আমাজনের সেরা এমপ্লয়ি কমলগঞ্জের মিজান বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনাসভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ দুর্গাপুরে বঙ্গমাতার জন্মদিনে ভাইস চেয়ারম্যান সাদ্দাম আকঞ্জি’র দোয়া ও মিলাদ মাহফিল ঢাকার দুই মেয়র পূর্ণমন্ত্রীর মর্যাদা পাচ্ছেন মুরগির খামারে বিজি মারতে বানানো ফাঁদে মারা গেলেন নিজেই দুর্গাপুরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিন পালিত সান্তাহার স্টেশনে চোর চক্রের এক সদস্য গ্রেপ্তার চিলমারীতে সোনালী ব্যাংকের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর

রংপুরে খুব ভালো যাচ্ছে টুপির ব্যবসা

  • প্রকাশ রবিবার, ১ মে, ২০২২, ৬.০৩ এএম
  • ৯২ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ  সুরমা, আতর ও টুপি বেচাকেনার ধুম পড়েছে রংপুরের ঈদবাজারে। সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলে বেচাকেনা। টুপি, আতর ও সুরমা ব্যবসায়ীরা বলছেন, ক্রেতাদের বেশিরভাগই অল্প বয়সী ছেলে। ঈদের শেষ সময় এ বছর টুপি বেচাকেনা অনেকটাই ভালো হওয়ায় খুশি ব্যবসায়ীরা।উত্তরাঞ্চলসহ রংপুরের টুপি ঢাকার রাজধানী হয়ে বিভিন্ন বিভাগীয় শহর ও জেলা শহরগুলোতে যাচ্ছে। আর বিক্রিও হচ্ছে অনেক বেশি। এ অঞ্চলের টুপি ভালো হওয়ায় চাহিদা অনেক বেশি, মানও ভালো। রংপুর অঞ্চলের টুপির চাহিদা অনেক বেশি ব্যবসায়ীদের কাছে।অন্যদিকে, দর্জি বাড়িতেই টুপি তৈরি ধুম পড়েছে। বিভিন্ন ডিজাইনের টুপি তৈরি করছেন দর্জিরা। দর্জিবাড়ি থেকে ব্যবসায়ীরা টুপি কিনে বিভিন্ন মার্কেটে বিক্রি করছেন। তবে ক্রেতাদের দাবি বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে টুপি।নগরীর টুপি ব্যবসায়ী জহুরুল ইসলাম জানান, গত দুই বছরের তুলনায় এ বছর ঈদে টুপি বিক্রয়ের চাহিদা অনেক বেড়েছে। বেশিরভাগ মানুষ শপিংয়ের পর দু-একটি করে টুপি কিনে বাড়ি নিয়ে যাচ্ছেন ছেলেদের জন্য। টুপিতে আগ্রহ বেড়েছে শিশুদেরও। বিভিন্ন ডিজাইনের টুপি কিনছে তারা। ব্যবসায়ীদের দাবি, এ বছর প্রচুর টুপি বেচা-কেনা হবে রংপুর জেলায়।

অন্যদিকে, বড় বড় শপিং সেন্টার ও গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারে পসরা সাজিয়ে বসেছেন টুপি বিক্রেতারা। বেচাকেনা অনেক বেশি। সাদা টুপির ওপর ঝোঁক বেশি ক্রেতার।  রংপুর নগরীর আলমনগরের দর্জি আল-আমিন হোসেন জানান, এ বছর ঈদে টুপি তৈরি করতে অনেক বেগ পেতে হচ্ছে। চাহিদা বেশি হওয়ায় ব্যবসায়ীরা টুপি তৈরির অর্ডার দিচ্ছেন। তবে বেশি চাপ ও চাহিদা হওয়ায় এখন আর টুপি বানানোর অর্ডার নেয়া হচ্ছে না। এবার ঈদে টুপি তৈরি সবচেয়ে বেশি হচ্ছে বলে দাবি দর্জিদের।মার্কেটে টুপি নিতে আসা জিয়া, লিটন, শফি ও রুহুল আমিন জানান, গতবছর ঠিকভাবে ঈদ উদযাপন করতে পারেনি কেউ। সেই সময় টুপির চাহিদা কম ছিল। করোনার কারণে বাসা বাড়ি থেকে বের পারছিলেন না ঈদে। এই ঈদে আনন্দটাই অনেক বেশি। এ কারণেই টুপি কিনতে এসেছেন তারা।

আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ঈদের নতুন পাঞ্জাবি-পায়জামা পরবে, সাথে নতুন টুপি না পড়লে ঈদ সম্পূর্ণ হবে না। তাই নতুন টুপি কিনতে এসেছি। গতবছর ঠিকভাবে ঈদের নামাজ পড়তে পারিনি করোনার কারণে। এ বছর বন্ধু-বান্ধবসহ একসঙ্গে ঈদগাহে নামাজ পড়বো তাই নতুন টুপি কিনে নিয়েছি।টুপি বিক্রেতা দেলোয়ার হোসেন জানান, এবার ঈদে ১০০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত টুপি বিক্রি করা হচ্ছে। প্রকারভেদ দাম রয়েছে টুপির। তবে কম বয়সী ছেলেরা টুপি কেনাতে উপচে পড়েছে। বেচা-কেনা কয়েক বছরের তুলনায় এ বছর অনেক বেশি। অনেক ক্রেতাদের রঙ্গিল টুপি বেশি কিনতে দেখা গেছে।রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের ভাইস প্রেসিডেন্ট মনজুর আহমেদ আজাদ জানান, এবছর ঈদে মানুষের কেনাকাটার ধুম পড়েছে। সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত মার্কেট ও ফুটপাতে বেচাকেনা চলছে অনেকটাই বেশি। আর টুপি বিক্রেতারা গত দুই বছরে টুপি বিক্রয় করতে পারেননি করোনার কারণে। এবার ঈদে পুষিয়ে নিচ্ছেন টুপি বিক্রেতারা। এ কারণে টুপি বিক্রি ধুম পড়েছে দর্জিবাড়িগুলোতে। এর সাথে বিক্রি হচ্ছে সুরমা আতরও।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ও জেলা পুলিশ জানান, সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত বিভিন্ন মার্কেট ও গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারে পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করছেন তারা। কাউকে যেন অপ্রীতিকর ঘটনায় পড়তে না হয় সেদিকে দৃষ্টি রয়েছে তাদের।  রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহা. আবদুল আলীম মাহমুদ (বিপিএম) জানান, নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ও পুলিশের টহল প্রতিটি মার্কেটেই জোরদার করা হয়েছে। যেহেতু সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত এ ঈদে বেচাকেনায় ধুম পড়েছে বিক্রেতাদের। মার্কেটগুলোতে গঠন করা হয়েছে মনিটরিং টিম। প্রতিটি মার্কেটে ও ফুটপাতে বেচাকেনা বেশি হচ্ছে। এ কারণে সাদা পোশাকে পুলিশের নজরদারি রাখা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam