তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৪:০৯ অপরাহ্ন

শেষ মুহূর্তে ঈদের কেনাকাটা করতে প্রসাধনীর দোকানে ভিড়

  • প্রকাশ রবিবার, ১ মে, ২০২২, ৫.৪৭ এএম
  • ৬৩ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্কঃ  এক মাস সিয়াম সাধনার পর আসছে খুশির ঈদ। পবিত্র ঈদুল ফিতর ঘিরে যাবতীয় কেনাকাটা এখন প্রায় শেষের দিকে। তবে চাঁদরাত পর্যন্ত কিছু পণ্যের দোকানে সাধারণত ভিড় লেগেই থাকে। এর মধ্যে অন্যতম প্রসাধনসামগ্রী।গতকাল শনিবার রাজধানীর নিউ মার্কেট, ধানমণ্ডির রাপা প্লাজা, পান্থপথের বসুন্ধরা শপিং মল, গুলশানের পুলিশ প্লাজা ও শাহজাদপুরের সুবাস্তু নজর ভ্যালি ঘুরে প্রসাধনীর দোকানগুলোতে গতকাল বিক্রেতাদের তুলনামূলক ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেছে। ফুটপাতের এমনকি পাড়ামহল্লার কসমেটিকসের দোকানগুলোতেও ক্রেতার ভিড় দেখা যাচ্ছে।ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত দুই বছর করোনা মহামারির পর এবার কিছুটা স্বাভাবিক সময়ে এমন জমজমাট বেচাকেনাই তাঁরা প্রত্যাশা করেছিলেন।বসুন্ধরা শপিং মলের মূল গেট দিয়ে ঢুকতেই হাতের ডান দিকে বেশ কয়েকটি প্রসাধনসামগ্রীর দোকান। প্রতিটি দোকানেই ক্রেতার বেশ ভিড়। তরুণরা কিনছেন পছন্দের পারফিউম বা হেয়ার জেল। তবে তরুণীদের প্রসাধনসামগ্রীর তালিকা অবশ্য একটু বড়। নারীদের জন্য এখানকার প্রায় সব দোকানেই রয়েছে লিপস্টিক, লিপ প্লজ, লিপলাইনার, মাশকারা, আইলাইনার, কাজল, আইশ্যাডো, আইব্রো পেনসিল, নেইলপলিশ, ফাউন্ডেশন, প্রাইমার, ফেস পাউডার, ব্লাশন, কনসিলার, সেটিং স্প্রে, হাইলাইটার ইত্যাদি।

বসুন্ধরা শপিং মলের লেভেল ওয়ান ও লেভেল থ্রির প্রসাধনসামগ্রীর দোকানিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এখানকার প্রসাধনসামগ্রীর বেশির ভাগই বিদেশি নামিদামি ব্র্যান্ডের। সব পণ্যের মূল্যই নির্ধারিত, দামাদামির সুযোগ নেই।শপিং মলের সেইফলি কসমেটিকস নামের দোকানের বিক্রয়কর্মী মো. রাসেল বলেন, ‘লিপস্টিক, কাজল ও ফাউন্ডেশনের বিক্রি সবচেয়ে বেশি। তা ছাড়া ঈদের পোশাক ও গয়নার সঙ্গে মিল রেখে অনেকে নেইলপলিশ কিনছেন। ’বসুন্ধরা শপিং মলে দামাদামির সুযোগ না থাকলেও নিউ মার্কেট ও আশপাশের বিপণিবিতানগুলোতে ক্রেতারা দরদাম করে পছন্দের পণ্য কিনছেন। এখানে কথা হয় আজিমপুর থেকে আসা নাবা ও সাবা নামের দুই বোনের সঙ্গে। নাবা বলেন, জামার সঙ্গে মিল রেখে তাঁরা চুড়ি, লিপস্টিক আর নেইলপলিশ কিনেছেন। ফাউন্ডেশনসহ আরো কয়েকটি আইটেম কেনা হয়ে গেলেই এবারের মতো ঈদের কেনাকাটা শেষ তাঁদের।

হাতে থাকা মেহেদির প্যাকেট সম্পর্কে জানতে চাইলে নাবা বলেন, ‘দ্রুত হাত রাঙাতে অনেকে গোল্ড মেহেদি ব্যবহার করেন। কিন্তু আমরা কাবেরি মেহেদি কিনেছি। বর্তমানে কাবেরি মেহেদির ট্রেন্ড চলছে। ’মোহাম্মদ রুমেল নামের প্রসাধনসামগ্রীর একজন বিক্রয়কর্মী নাবার কথার সঙ্গে যোগ করলেন, ‘এটি হাত রাঙাতে সময় নিলেও হাতের কোনো ক্ষতি করে না। ’

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam