তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:১৯ অপরাহ্ন

দুই বছর ধরে পার্বতীপুরে এক জোড়া ডেম্যু ট্রেন বন্ধ

  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ৯ জুন, ২০২২, ১২.০৮ পিএম
  • ১২৪ বার ভিউ হয়েছে

সোহেল সানী:  ট্রেনের দুই দিক দিয়ে দুইটি ইঞ্জিন, মাঝখানে বগি থাকে। বগিতে কোনো টয়লেট নেই। এমন ভাবে জানালার কাচ বসানো ভেতরে বাতাস ঢোকে না। এই ট্রেনের নাম হলো ডিজেল-ইলেকট্রিক মাল্টিপল ইউনিট-ডেমু। ২০২০ সালের ২৬ মার্চ থেকে প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ ও রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে পার্বতীপুর এক জোড়া ডেমু ট্রেন দুই বছর ২ মাস ১৪ দিন ধরে চলাচল বন্ধ রয়েছে। আধুনিক সুবিধা সম্পন্ন ট্রেন দুটি যাত্রী পরিবহনে ভাল স্বাক্ষর রাখলেও এখন পড়ে আছে একটা পার্বতীপুর লোকোশেডে অপরটি ডিজেলসপে। রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামতে যেসব যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম প্রয়োজন, তা এ দেশে নেই। বছরের পর বছর ধরে নষ্ট হয়ে পড়ে থাকা ডেমু ট্রেন দু’টির মধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে একটা ডেমু ট্রেন দেশীয় প্রযুক্তিতে মেরামতের কাজ চলছে। ২০২১ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ডেমু ট্রেন (১০০২৭ মটরকার/ট্রেইলরকার ১০০২৮) একটি পার্বতীপুর ডিজেলশপে ওভারহালিংয়ের জন্য পাঠানো হয়। ট্রেনের অন্যান্য কাজের অংশ হিসেবে মটরকার, হাইড্রোলিক সিস্টেম, ব্রেকিং, কুলিং ও ফিটিং সিস্টেমের কাজ করছেন লোকোশেডের কর্মচারীরা। ২০২০ সালে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে আরেক একটি ডেমু ট্রেন (১০০২৫ মটরকার/ট্রেইলরকার ১০০১৩) পার্বতীপুর লোকসেডে রাখা হয়েছে। ট্রেন দুটি ঘন্টায় ৮০ কিলোমিটার গতি সম্পন্ন ৩শ’ যাত্রীর ধারণ ক্ষমতার ৩টি বগির প্রতিটি ডেম্যু ট্রেনে ১শ’ ৪৯ যাত্রীর বসার ও ১শ’৫১ যাত্রীর দাড়িয়ে চলাচলের ব্যবস্থা রয়েছে। পার্বতীপুর থেকে লালমনিরহাট পর্যন্ত টিকেটের মূল্য ৩৫ টাকা এবং দিনাজপুর পর্যন্ত টিকেটের মূল্য ১৫ টাকা নির্ধারন করা হয়েছিল। পার্বতীপুর-লালমনিরহাট রেলপথের ছিল ৫টি রেলষ্টেশন খোলাহাটি, বদরগঞ্জ, রংপুর, কাউনিয়া ও লালমনিরহাট। পার্বতীপুর থেকে ঠাকুরগাঁও ৯৪ কিলোমিটার রেলপথের জন্য ছিল ৫টি রেলষ্টেশন চিরিরবন্দর, দিনাজপুর, সেতাবগঞ্জ, পীরগঞ্জ ও ঠাকুরগাঁও এ ডেম্যু ট্রেনটি যাত্রা বিরতি। ২০১৩ সালের ২০ জুলাই এক জোড়া ডেম্যু ট্রেন পার্বতীপুরে এনে রেলওয়ে ইয়ার্ডের ওয়াশ পিটে ফেলে রাখা হয়। পরে, ২০১৩ সালের ১৫ আগষ্ট পার্বতীপুর-ঠাকুরগাঁও ও পার্বতীপুর-লালমনিরহাট রেলপথে পরীক্ষামূলক ভাবে “ডেম্যু ট্রেন” চলাচল শুরু করে। ২০১৩ সালের ২৭ আগস্ট রেলমন্ত্রী মজিবুল হক পার্বতীপুর রেলওয়ে জংশন স্টেশনে ডেমু ট্রেনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
পার্বতীপুর লোকোসেডের ইনচার্জ সিনিয়র সহকারি প্রকৌশলী (এসএসএই/লোকসেড) কাফিউল ইসলাম জানান, পরীক্ষামূলকভাবে দেশীয় প্রযুক্তিতে একটা ডেমু ট্রেন মেরামতের কাজ চলছে। এই কাজ চলতি বছরের আগামী জুলাই মাসেই শেষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সফল হলে পড়ে থাকা অপর ডেমু ট্রেন চলাচলের উপযোগী করা যাবে। তাই এসব যন্ত্রপাতির অভাবে মেরামত করতে না পারায় ডেমু ট্রেন লোকসেডে পড়ে আছে। তিনি আরও বলেন, গুরুত্বপূর্ণ এই লোকোসেডে জনবল মঞ্জুরী ৪১২ স্থলে বর্তমানে কর্মরত আছেন ২৩৩ জন। বিশেষ করে মিটারগেজ লাইন (এমজি) ট্রেন ১ চালক (এলএম) ঘাটতি ৪৬ ও ব্রডগেজ লাইন বিজি ২৩ জন। প্রয়োজনীয় জনবল না সত্বেও দুর্ঘটনায় জরুরী উদ্ধার কাজে রিলিফ ট্রেনের অপারেশন করতে হয়।
রেলওয়ের পার্বতীপুর স্টেশন মাস্টার শওকত আলী জানান, যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ডেমু ট্রেনটি বন্ধ আছে। রেলওয়ের ওয়ার্কশপে ট্রেনটি মেরামতের জন্যে আছে বলে তিনি জানতে পেরেছেন। তবে, কবে নাগাদ এ রুটে ডেমু ট্রেন আবার চালু হবে তা তিনি নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি রেলের এ কর্মকর্তা।
লালমনিরহাট ডিভিশনাল ট্রাফিক সুপারিনটেনডেন্ট (ডিটিএস) খালিদুন নেছা সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে এ বিষয়ে তিনি ডিআরএমের সাথে কথা বলতে বলেন। তবে, কবে নাগাদ ডেম্যু ট্রেন দু’টি চালু হবে এ বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারেননি রেলওয়ের লালমনিরহাট বিভাগীয় ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) শাহ সুফি নূর মোহাম্মদ। ডেমু ট্রেন মেরামতের কাজ চলছে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam