তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৭:০৮ অপরাহ্ন

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে কমলা ও বেগুনি রঙের ফুলকপি

  • প্রকাশ সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২, ৮.৩২ এএম
  • ৩৩ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: সাধারণত বাজারে আমার সাদা রঙের ফুল কপি দেখেই অভ্যন্ত। কিন্তু কমলা ও বেগুনি রঙের ফুলকপি সম্পর্কে আমাদের তেমনটা ধারণা নেই। সম্প্রতি নেত্রকোনার এক চাষি এ বছর উজ্জ্বল হলুদ আর গাঢ় বেগুনী রঙের ফুলকপি চাষ করে রীতিমত তারকা বনে গেছেন।

বর্ণিল এই ফুলকপিগুলোতে বেটা ক্যারোটিন এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট অ্যান্থোসায়ানিন্সের পরিমাণ বেশি থাকায় এগুলোর রয়েছে ক্যান্সারসহ আরো নানা রোগ প্রতিরোধ করতে সক্ষম।

নেত্রকোনার ওই কৃষক ২২ বছর ধরে কৃষি কাজ করেন। এ কাজ করেই তিনি সংসার চালান। কিন্তু এ সময় ধরে তার চাষাবাদ নিয়ে এত আলোচনা হয়নি। যতটা আলোচনা হয়েছে হলুদ আর বেগুনি ফুলকপি চাষ করার পর।

তিনি বলেন, অনেক কৃষক আমার সাথে যোগাযোগ করছে। এতে আমি ব্যাপক অভিভূত। নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টা উপজেলা সদর থেকে এক কিলোমিটার দূরের গ্রাম রসুলপুরের কৃষক সন্তোষ বিশ্বাসের বাড়ি।

সন্তোষ বিশ্বাস বলেন, আসছে শীত মৌসুমে তিনি নিজের পুরো জমিতে রঙিন ফুলকপির চাষ করবেন। কিন্তু এর বীজ বা চারা তিনি খুঁজে পাচ্ছেন না। এমনকি জামালপুরের যে নার্সারি থেকে চারাগুলো তিনি সংগ্রহ করেছিলেন ওই নার্সারির লোকজনই জানতো না এগুলো ফুলকপির চারা।

পড়তি মৌসুমে তিনি তিনশ’র অধিক রঙিন ফুলকপি চাষ করেন। তার ক্ষেতে উৎপাদিত ফুলকপি প্রদর্শিত হয়েছে সরকারের আয়োজিত উদ্ভাবনী মেলা আর কৃষি প্রদর্শনীগুলোতে।

বিভিন্ন জায়গা থেকে সবজি চাষিরা তার সাথে যোগাযোগ করতে শুরু করেছেন- কোথায় পাওয়া যাবে এই ফুলকপির বীজ বা চারা? কিন্তু জামালপুরের যে খামারটি থেকে তিনি চারাগুলো এনেছিলেন, তখন তাড়াহুড়োয় তাদের ফোন নম্বর সংগ্রহ করতে পারেননি তিনি। এমনকি খামারটির নামও তার মনে নেই। শুধু জায়গাটা মনে আছে।

ঢাকায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে এ বিষয়ে যোগাযোগ করেন কৃষক সন্তোষ ব্শ্বিাস। কিন্তু তারও কোনো খবর দিতে পারেননি। তবে তারা জানায় এই বীজ ভারতে পাওয়া যায়।

সন্তোষ বিশ্বাস এক একটি ফুলকপি বিক্রি করেন একশো টাকার উপরে। এই সবজিটিকে একটি ‘হাই ভ্যালু ক্রপ’ বা উচ্চমূল্যের ফসল হিসেবে চিহ্নিত করে কৃষি কর্মকর্তারা বলছেন, তারা এটিকে কৃষকদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে কাজ করবেন।

বেগুনি ফুলকপি রান্নার পর বিবর্ণ হলেও কমলা ফুলকপি বিবর্ণ হয় না। তবে বেগুনি ফুলকপি সবচাইতে স্বাস্থ্যকর। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট অ্যান্থোসিয়ানিন্সের উপস্থিতির কারণে এটির রঙ এমন বেগুনি।

বেগুনি ফুলকপি প্রদাহ উপশম, কার্ডিওভাসকুল্যার সমস্যা এবং ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে উপকারী।

আরেকটি রঙের ফুলকপিও হয়, সেটির রঙ সবুজ। এটিতে ক্লোরোফিলের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে। পশ্চিমা দেশে এটি ব্রকলিফ্লাওয়ার নামেও পরিচিত।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam