তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ১০:১০ পূর্বাহ্ন
muktinews24
সদ্য সংবাদ :
পলাশবাড়ীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে এক ব্যক্তির মৃত্যু রংপুরের কাউনিয়ায় চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্রী সানজিদা ইভা হত্যার ঘটনায় এক দিনের মধ্যে রহস্য উদঘাটন  ঝড়ো আবহাওয়া ও মুষলধারে বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে কয়েক হাজার নেতা-কর্মীদের উপস্থিতিতে পিরোজপুরে শোক দিবস উপলক্ষে জেলা আওয়ামীলীগের সভা কুড়িগ্রাম সদর থানায় লাশঘরের উদ্বোধন ট্রাকচাপায় ভ্যানচালকের মৃত্যু শেখ হাসিনা মানুষের কষ্ট বোঝেন : ওবায়দুল কাদের ৪ মাসে এক কোটি ট্রেনের টিকিট বিক্রি, দাবি সহজের শ্রীমঙ্গলে মুরগি ও ডিমের ৪ প্রতিষ্টানকে জরিমানা ঘোড়াঘাটে নদীর পানি থেকে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির লাশ উদ্ধার কুড়িগ্রামে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেলো এসএসসি পরিক্ষার্থীর

পলাশবাড়ীতে ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে  পুলিশ উদ্ধার করল গৃহবধুকে

  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ২ আগস্ট, ২০২২, ৮.৫৪ এএম
  • ৫৭ বার ভিউ হয়েছে
ছাদেকুল ইমলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে যৌতুকের দাবিতে শাপলা বেগম (২৩) নামের এক গৃহবধূকে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ পলাশবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। শাপলা বেগম উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের কেত্তারপাড়া গ্রামের হাফিজার রহমানের মেয়ে।  অভিযোগের বিবরণে জানা যায়,প্রায় ৫ বছর পূর্বে ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক শাপলা বেগমের সহিত একই উপজেলার পলাশবাড়ী পৌরসভা এলাকার বাঁশকাটা গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে মোতাল্লিব ওরফে মুন্না  বিবাহে আবদ্ধ হয়। বিবাহের সময় স্বর্ণালংকার,ঘরের বিভিন্ন প্রকার আসবাবপত্রসহ নগদ ৪ লক্ষ টাকা উপঢৌকন হিসেবে দেন ভুক্তভোগী গৃহবধূর পরিবার। বিবাহের প্রায় ৬ মাস পর শাপলা বেগমকে ঢাকায় নিয়ে যান মোতাল্লিব ওরফে মুন্না। সেখানে তারা একটি পোশাক তৈরির কারখানায় কাজ নেন। ওই দম্পতির ঘরে আড়াই বছর বয়সের একটি কণ্যা সন্তান রয়েছে। বর্তমানে তারা নিজ গ্রাম বাঁশকাটায় বসবাস করে আসছিলেন। সম্প্রতি শাপলা বেগমের স্বামী মোতাল্লিব ওরফে মুন্না ও তার পরিবারের লোকজন যৌতক হিসেবে আরও ৫ লক্ষ টাকা নিয়ে আসতে শাপলা বেগমকে চাপ দেন। কিন্তু,ভুক্তভোগী তা আনতে অস্বীকার করায় বিভিন্ন সময় স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন অমানবিক নির্যাতন করে আসছিল। নির্যাতনের ধারাবাহিকতায় ৩১ জুলাই রোববার সকালে গৃহবধূ শাপলা বেগমকে বেধড়ক মারপিট করাকালীন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি ৯৯৯ এ ফোন করলে তৎক্ষনাৎ পলাশবাড়ী থানার এসআই আব্দুল মান্নান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে গৃহবধূ শাপলা বেগমকে উদ্ধার করে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করাতে সহযোগিতা প্রদান করেন। বর্তমানে নির্যাতিত গৃহবধূ শাপলা বেগম চিকিৎসা শেষে তার বাবার বাড়ীতে রয়েছেন।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam