তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৩২ পূর্বাহ্ন

ঘোড়াঘাটে স্বামীর মৃত্যুর শোকে স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা 

  • প্রকাশ শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬.১৫ এএম
  • ১৭ বার ভিউ হয়েছে
মনোয়ার বাবু,ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে স্বামীর মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে সুমি আক্তার (৩১) নামের এক নারী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছে।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা অনুমান ৭টায় নিজ বাড়ির শয়ন কক্ষে থেকে গলায় ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।নিহত সুমি আক্তার পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের চকবামনিয়া বিশ্বনাথ পুরের মোঃ কিনা মাহমুদ এর মেয়ে।
পারিবারিক সূত্রে জানাযায়,১২বছর পূর্বে একই উপজেলার ইদ্রিস আলী নামের এক ব্যক্তির সাথে সুমি আক্তারের বিয়ে হয়।সেখানে সুমি আক্তার তার স্বামীর সাথে বেশ সুখে শান্তিতে ঘর সংসার করতে থাকে।কিন্তু হঠাৎ তার স্বামীর কিডনি জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ১৩ মাস পূর্বে মৃত্যু বরণ করলে,তারপর থেকে সুমি আক্তার তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করে। প্রায় সময়ই মৃত স্বামীর জন্য সুমি কান্নাকাটি করত এবং মাঝে মাঝে খাওয়া-দাওয়া না করায় বিভিন্ন ধরনের মানসিক দূচিন্তায় অসুস্থ হয়ে পড়ে।
নিহত সুমি আক্তারের বাবা চা দোকানদার কিনা মাহমুদ জানান,প্রতি দিনের ন্যায় তিনি এবং তার স্ত্রী উপজেলার সামনে চায়ের দোকান বন্ধ করে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরারপর তার স্ত্রী নিজ ঘড়ের আড়ার সাথে মেয়ের গলায় ফাঁস দেওয়া মরদেহ দেখতে পেয়ে চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন।তার স্ত্রীর ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এবং স্থানীয় কমিশনার ছুটে আসেন।পরে থানা পুলিশ কে খবর দিলে,পুলিশ এসে নিহত সুমির ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে।
নিহত সুমির বাবা কিনা মাহমুদ আরও জানান,বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে তার মেয়ে স্বামীর মৃত্যুর জন্য মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়ায় আত্নহত্যা করেছে।
ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আবু হাসান কবির জানান,এবিষয়ে একটি অপমৃত্যুর মামলা রুজু হয়েছে।নিহতের বাবা-মা,স্থানীয় কমিশনার ও সাধারণ লোকজনের আবেদনের প্রেক্ষিতে লাশ তার বাবার জিম্মায় প্রদান করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam