তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন

চাঁদপুরে ইলিশ আছে,

  • প্রকাশ শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১০.২০ এএম
  • ১৯ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪ ডট কম ডেস্ক:  চাঁদপুরে পাইকারি মাছের মোকাম বড়স্টেশনে ছোট আকারের চেয়ে বড় আকারের ইলিশ মিলছে বেশি। ইলিশের দাম অন্যদিনের তুলনায় ক্রেতার নাগালে থাকলেও নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষজনকে ইলিশের স্বাদ নিতে বেগ পেতে হচ্ছে। এছাড়া মৌসুমের এই সময় চাহিদা বেশি থাকায় পাইকারি ক্রেতার চেয়ে সরাসরি ভোক্তা পর্যায়ের ক্রেতা বাড়ছে। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চাঁদপুরে ব্যস্ত মোকাম ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে।

এদিকে, দেশের বাজারের পাশাপাশি চাঁদপুর থেকে ভারতেও ইলিশের চালান যাচ্ছে। তবে ভারত থেকে যে পরিমাণ ইলিশের অর্ডার এসেছে, ব্যবসায়ীরা তা দিতে পারছেন না। কারণ, চাহিদার চেয়ে বাজারে জোগান কম। পাঁচ হাজার মেট্রিক টনের অর্ডারের বিপরীতে দুই হাজার মেট্রিক টন ইলিশ পাঠাতে পেরেছেন সরবরাহকারীরা।

মাদারীপুরের শিবচরের ওমর ফারুক ঢাকার মিরপুরে পরিবার নিয়ে বাস করেন। ইলিশের মৌসুমে রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ও পাড়ার ফেরিওয়ালাদের কাছ থেকে কয়েক দফায় ইলিশ কেনেন তিনি। তবে এবার স্বাদ ও গন্ধে মিল খুঁজে না পেয়ে তিনি সরাসরি ইলিশ কিনতে চাঁদপুরের বড়স্টেশনে আসেন। এখানে ঘণ্টা দুই ঘুরে নিজের ও আত্মীয়-স্বজনের জন্য এক মণ ইলিশ কিনেছেন তিনি।

এক কেজির কম ওজনের প্রতিটি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৭৫০ টাকায়। আবার কেউ দেড় কেজি ওজনের ইলিশও কিনছেন। বড় আকারের এই ইলিশের দাম কেজিপ্রতি ১৩০০ থেকে ১৪০০ টাকা পর্যন্ত।

কুমিল্লা শহর থেকে ইলিশ কিনতে বড়স্টেশনে আসেন আলম সরকার। তিনি জানান, অনেক জায়গা থেকে ইলিশ কিনে প্রতারিত হয়েছি। তাই চাঁদপুর মোকামে ইলিশ দেখছি। তবে তরতাজা হলেও আকারভেদে ইলিশের দাম এখনও ক্রয়ক্ষমতার বাইরে।

চাঁদপুরের গণমাধ্যমকর্মী ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, আয়ের সঙ্গে সঙ্গতি নেই অনেকেরই। চাঁদপুরে পাইকারি মোকাম ইলিশে সয়লাব হলেও জেলার সাধারণ মানুষ তা কিনতে হিমশিম খাচ্ছেন। এমন পরিস্থিতিতে তিনি প্রশাসনকে ইলিশের পাইকারি বাজার নিয়ন্ত্রণে মনিটর করার দাবি জানান।

চাঁদপুর মৎস্য বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শবেবরাত জানান, চলতি মৌসুমে চাঁদপুরে ভারত থেকে পাঁচ হাজার মেট্রিক টন ইলিশের অর্ডার এসেছে। কিন্তু মোকামে সরবরাহ কম থাকায় মাত্র দুই হাজার মেট্রিক টন ইলিশ চালান দেওয়া গেছে। সভাপতি আব্দুল বারী জমাদার জানান, অন্য বছরের তুলনায় এবার ইলিশের সরবরাহ অনেক কম। তাই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা পাইকারি ও খুচরা ক্রেতাদের চাহিদা পূরণ করা যাচ্ছে না। একই কারণে অন্য বছরের চেয়ে দামও কিছুটা চড়া।

শনিবার চাঁদপুরের বড়স্টেশন পাইকারি মোকামে সব মিলিয়ে ইলিশের সরবরাহ ছিল প্রায় দেড় হাজার মণ। আকারভেদে প্রতি মণ ইলিশ বিক্রি হয়েছে ২৭ হাজার থেকে ৫৪ হাজার টাকা পর্যন্ত।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam