তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০২:১৬ অপরাহ্ন

দুধ, মাছ-মাংসের উৎপাদন বাড়লেও স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে পারিনি

  • প্রকাশ রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১০.৩০ এএম
  • ১৭ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪ ডট কম ডেস্ক: কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, দুধ, মাছ, মাংসের উৎপাদন বেড়েছে। তবে এসব খাদ্যপণ্যে আমরা এখনো স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে পারিনি। তিনি বলেন, দেশের বাজারে ডিমের আবারও মূল্যবৃদ্ধি এটা স্বাভাবিক। তবে আশা করি এটা শিগগির কমে যাবে। রোববার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে ‘প্রানিসম্পদ খাতে আর্থিক অন্তর্ভুক্তি বৃদ্ধিতে চতুর্থ শিল্পবিল্পব প্রযুক্তির ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। সেমিনারের আয়োজন করে ‘আদর্শ প্রাণিসেবা লিমিটেড’। মন্ত্রী বলেন, ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য আমরা একটু থমকে আছি। ম্যানুফ্যাকচারিং সেক্টরটা বড় হলে আমাদের কর্মসংস্থান বাড়বে। তখন ডেইরি, পোল্ট্রির চাহিদা আরও বাড়বে। মানুষ অনেক সচেতন।

দুধ, মাছ, মাংসের উৎপাদন বাড়লেও আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে পারিনি, এমন কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের ডিমের উৎপাদন বেড়েছে। দুধের উৎপাদন ২০-৩০ লাখ টন ছিল, সেটা ১ কোটি ৩০ লাখ টন হয়েছে। মাংসের উৎপাদন এখন ৯০ লাখ টন। আমি মনে করি মাছ-মাংসে আমাদের যে প্রযুক্তি রয়েছে, অবকাঠামো রয়েছে, সেগুলো যদি আমরা বাড়াতে পারি তাহলে মাংসে আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণ। আমরা কিন্তু দুধে মাংসে কোথাও স্বয়ংসম্পূর্ণ না। গ্রামে এখনো মানুষ নিজে না খেয়ে তার উৎপাদিত ডিম, দুধ বাজারে বিক্রি করছে জানিয়ে তিনি বলেন, গাভীর দুধ নিজের ছেলে-মেয়ের মুখে তুলে দেয় না। এটা খুবই দুঃখকজনক।

তিনি আরও বলেন, মানুষের আয় এত কম। আমরা দাবি করছি খাদ্যে আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণ, খাদ্যেও আমরা ওইরকম স্বয়ংসম্পূর্ণ না। তবে আমাদের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। আগে আশ্বিন কার্তিক মাস আসলে খাদ্যের সংকট দেখা দিত। যে দারিদ্র্য আমরা দেখেছি, সেটি নাই। দুইদিন, তিনদিন খেতে পারে না, সেই পরিস্থিতি নাই। আদর্শ প্রাণিসেবা লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফিদা হক স্বাগত বক্তব্যে বলেন, চতুর্থ শিল্পবিপ্লব বিশ্বব্যাপী শিল্প ও জীবিকাকে প্রতিনিয়ত পরিবর্তন করে চলছে। আধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয়ে কৃষিকে এগিয়ে নিতে আমরা কাজ করছি।

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইসমাইল হোসেন বলেন, আমরা দুর্নীতিমুক্তভাবে কৃষিসহ সব সাব-সেক্টরে ভূমিকা রাখবো। কৃষি উন্নয়ন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ বলেন, একজন কৃষক বলেছিল আমার গরু যদি মারা যায় তাহলে আমার অনেক ক্ষতি হবে। মোটরসাইকেল কিনলে বীমা পাওয়া যায়, গবাদি পশুতে পাওয়া যায় না। এখন প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃষকের বীমা ও ঋণ সহজ করা যায়। ভর্তুকি পাওয়ার কারণে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। কৃষক প্রিমিয়ামের টাকা দিতে চায় না, এক্ষেত্রে সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব (আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ) শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam