তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:০৯ পূর্বাহ্ন

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬২, নিখোঁজ অনেকে

  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ২২ নভেম্বর, ২০২২, ৩.৪৭ এএম
  • ১৪ বার ভিউ হয়েছে

মুক্তিনিউজ২৪ ডট কম ডেস্ক : ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপে ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬২ জন। এছাড়া আরও শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। আঞ্চলিক গভর্নর রিদওয়ান কামিল সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

 

এর আগে সোমবার (২১ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টা ২১ মিনিটে ইন্দোনেশিয়ায় আঘাত হানে ৫ দশমিক ৬ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প।

 

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ভূমিকম্পে আহত বহু মানুষকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আবার অনেককে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে হাসপাতালের বাইরে।

 

এছাড়া ধসেপড়া ভবনের নিচে আটকে থাকা মানুষদের বাঁচানোর জন্য উদ্ধারকারীরা রাতেও কাজ করছেন।

 

জাভার গভর্নর জানান, ভূমিকম্পে এক হাজার লোক তাদের থাকার জায়গা হারিয়েছেন। দুই হাজারের বেশি বাড়িঘর ভেঙ্গে গেছে।

 

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার (ইউএসজিএস) তথ্যমতে, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল সিয়ানজুর এলাকা থেকে ১৮ কিলোমিটার দূরে এবং কেন্দ্র ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে ১০ কিলোমিটার গভীরে।

 

ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল পশ্চিম জাভার পাহাড়ী এলাকা সিয়ানজুর। এটি ইন্দোনেশিয়ার সবচেয়ে জনবহুল প্রদেশ। ভূমিকম্পে এত মানুষ আহত হয়েছেন যে, সিয়ানজুরের হাসাপাতালের গাড়ি পার্কের স্থান, বেজমেন্টে মানুষের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়। অন্যদিকে টর্চের আলোতে আহতদের কাটা-ছেঁড়া সেলাই করতে দেখা যায় চিকিৎসকদের।

 

ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে কুকু নামে ৪৮ বছর বয়সী এক নারী হাসপাতাল থেকে বলেন, ‘আমার নিচের সবকিছু ধসে পড়ে। বাচ্চাদের নিচে আমি চাপা পড়েছিলাম।’

 

কুকু রয়টার্সকে আরও জানান, ধ্বংসস্তুপ থেকে নিজের দুই সন্তানকে বের করে নিয়ে আসতে সমর্থ হন তিনি। এরপর তাদের হাসপাতালে নিয়ে আসেন। কিন্তু তার এক সন্তান এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

 

ইন্দোনেশিয়ার পুলিশের একজন মুখপাত্রের বরাতে বার্তাসংস্থা অন্তরা নিউজ জানিয়েছে, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকালে ঘটনাস্থলে কয়েকশ পুলিশ সদস্যকে পাঠানো হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে উদ্ধার করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তাদের।

 

পশ্চিম জাভার গভর্নর রিদওয়ান কামিল জানান সোমবারের ভূমিকম্পে ১৬২ জন নিহত হওয়ার ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছেন তারা। তিনি আরও জানান, দুর্গম কিছু এলাকায় মানুষ এখনো আটকে আছেন। এতে মৃতের সংখ্যা বাড়বে। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আহত ও মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে এ বিষয়টি মাথায় রেখেই তারা কাজ করছেন।

 

ভূমিকম্পের প্রভাবে কিছু কিছু জায়গায় ভূমিধসও হয়েছে। ভূমিধসের কারণে কিউজেনাং নামে একটি অঞ্চল পুরোপুরি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। সেখানে উদ্ধারকারীরা যেতে পারছেন না। বিদ্যুৎ বিভ্রাটেও উদ্ধারকাজ ব্যহত হচ্ছে।

 

এদিকে বড় ভূমিকম্প আঘাত হানার পর অন্তত আরও ৮০ বার ছোট ছোট কম্পনে (আফ্টারশক) কেঁপে ওঠে জাভা। ভূমিকম্পপ্রবণ দেশ ইন্দোনেশিয়ায় প্রায়ই এরকম কম্পন অনুভূত হয়।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam