তথ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক নিবন্ধনকৃত, যার রেজি নং-৩৬

মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:২৯ পূর্বাহ্ন
সদ্য সংবাদ :
রাস্তায় সমাবেশের অনুমতি পাবে না বিএনপি : ডিএমপি কমিশনার উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষায় ব্যর্থ হওয়ার সুযোগ নেই নন্দীগ্রামে কমছে আলুর চাষ, বাড়ছে সরিষা ১৭ বছরে মৌলভীবাজার জেলার  ২ লক্ষ ৫ হাজার মানুষের বিদেশে কর্মসংস্থান,রাখছেন  দেশের অর্থনীতিতে রাখছেন ভূমিকা পরমাণু বিজ্ঞানী ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করলেন রংপুরের নবাগত জেলা প্রশাসক ঘোড়াঘাটে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট কাজেম উদ্দিন আহমেদের দাফন সম্পন্ন আজ মঙ্গলবার  ৬ ডিসেম্বর লালমনিরহাট মুক্ত দিবস ২৪ বছরের তরুণের সঙ্গে শাকিরার প্রেম! ৬ ডিসেম্বর কুড়িগ্রাম হানাদার মুক্ত দিবস  আটোয়ারীতে জাল টাকাসহ জালিয়াত চক্রের এক প্রতারক গ্রেফতার

গাইবান্ধায় কৃষকরা ঘরে তুলবেন প্রায় ৪ লাখ মেট্রিকটন আমন ধান

  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২২, ১১.০০ এএম
  • ১৭ বার ভিউ হয়েছে
ছাদেকুল ইসলাম রুবেল, গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধার মাঠপর্যায়ে শুরু হয়েছে আমন ধান কাটা-মাড়াইয়ের কাজ। প্রায় ৪ লাখ মেট্রিকটন ধান ঘরে তোলার লক্ষ্যে ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষক-শ্রমিকরা। দম ফেলানোর অবস্থা নেই তাদের।
মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে দেখা যায়, কৃষকের মাঠে ও বাড়ির উঠানে ধান কাটা-মাড়াইয়ের চিত্র। এসময় কোমর বেঁধে কাজ করছিলেন কৃষক-শ্রমিকরা। একই সঙ্গে বসে নেই গৃহবধূরাও। তারাও সোনার ফসল ঘরে তুলছেন মনের আনন্দে।
জানা গেছে, গত আমন ও বোরো মৌসুমে নদীবেষ্টিত গাইবান্ধায় নানা দুর্যোগে কৃষকের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এসব ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এ বছরে অধিক পরিমান জমিতে আবাদ করছে আমন ধান। এসব ক্ষেতে দেখা দিয়েছে বাম্পার ফলন। ইতোমধ্যে দেশীয় জাতের ধান কাটতে শুরু করছেন তারা।
কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, এ জেলায় আমনের চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ লাখ ২৯ হাজার ৫০০ হেক্টর। সেটি ছাড়িয়ে অর্জন হয়েছে ১ লাখ ২৯ হাজার ৬৯৯ হেক্টর। এর মধ্যে প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতি হয় প্রায় ২ হাজার হেক্টর জমির ধান। অবশিষ্ট ক্ষেত থেকে ৩ লাখ ৮৯ হাজার ৮৫৩ মেট্রিকটন ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।
নজরুল ইসলাম নামের এক ধানকাটা শ্রমিক বলেন, এ এলাকার কৃষকরা ধান কাটা-মাড়াই শুরু করেছে। এখন এ কাজটি করে জীবিকা নির্বাহ করছি।
খলিল মিয়া নামের এক কৃষক জানান, চলতি আমন মৌসুমে দেড় একর জমিতে ধান আবাদ করেন। ফলনও হয়েছে ভালো। এরই মধ্যে ক্ষেত থেকে ধান কাটা শুরু করা হয়েছে। বাজারে দাম ভালো পেলে অনেকটাই লাভবান হওয়া সম্ভব।
কৃষি বিভাগের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা তানজিমুল হাসান বলেন, রোপা আমান মৌসুমে কৃষকদের ভালো ফলন পেতে ও লাভবান করতে তাদের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।
গাইবান্ধা কৃষি সম্প্রাসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক বেলাল উদ্দিন জানান, আমন মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে। কৃষকদের প্রণোদনা দেওয়াসহ সার্বিক পরামর্শ অব্যাহত রয়েছে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Muktinews24.com © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.muktinews24.com কর্তৃক সংরক্ষিত.
Technical Support Moinul Islam